নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ এড. আবুল কালাম বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে দেশের জনগন ৭০ টাকা কেজিতে চাল খাচ্ছে, আর প্রতিনিয়ত গ্যাস ও বিদ্যুৎ সমস্যা হলেও দিন দিন এর মূল্য বৃদ্ধি হচ্ছে। তাই দেশের জনগনের অধিকার ফিরিয়ে আনতে বিএনপি সব সময় রাজপথে ছিলো এবং আগামীতেও থাকবে।

শুক্রবার (২২ সেপ্টম্বর) বাদ আছর বন্দর থানাধীন চৌধুরী বাড়ী জনতা ক্লাব মাঠে অনুষ্ঠিত সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ণ কর্মসূচীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আতাউর রহমান মুকুল এর সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, বিশেষ অতিথি হিেিসবে বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি হাজী নুরু উদ্দিন, এছাড়াও আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, সহ-সভাপতি এড. জাকির হোসেন, দপ্তর সম্পাদক হান্নান সরকার, মহানগর বিএনপি নেতা এড. আনিছুর রহমান মোল্লা, সুলতান আহম্মেদ,মহানগর মহিলা দলের নেত্রী এড. মাহমুদা আক্তার, মহানগর ছাত্র দলের যুগ্ম-আহবায়ক আবুল কাউছার আশা প্রমূখ।

এ সময় তিনি আরও বলেন, বিএনপি নেতারা সব সময় গনতন্ত্র রক্ষা করতে গিয়ে সরকারের মামলা হামলার শিকার হয়েও থেমে নেই। দেশের জনগনের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে গিয়ে যদি সরকারের আরও নির্যাতনের শিকার হতে হয় তবুও পিছ পা হবো না।

এ সময় তিনি মিয়ানমারের মুসলমানদের উপর নিযার্তনের বিষয় বলেন, সরকার রোহিঙ্গাদের উপর হামলার কোন প্রতিবাদ করছে না কারন তিনি নিজেই অবৈধ। বিএনপির পক্ষে এই অসহায় মুসলমানদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ত্রান নিয়ে যাওয়ার পথে সেখানেও সরকার বাঁধা প্রদান করেছে। এতেই বুঝা যায় বিএনপির কর্মকান্ডে সরকার ভীত।

সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, এই অবৈধ সরকার বিএনপির নেতাদের উপর এতো নির্যাতন করার পর তাদেরকে দাবিয়ে রাখতে পারেনি। তার প্রমান এই সমাবেশ থেকেই পাওয়া যায়। এই কর্মসূচীকে সফল করার জন্য আমি সকল নেতা কর্মীদেরকে ধন্যবাদ জানাই। সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচী আগামী ৩০ তারিখর মধ্যে শেষ হবে। আপনাদের সহযোগীতা পেলে অবশ্যই আমরা সফল ভাবে সম্পুর্ন্য করতে পারবো।

এ সময় তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আরও বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির যে কমিটি দিয়েছেন সেই কমিটিতে কোন বিরোধ নাই, তবে মত পার্থক্য রয়েছে। দলের প্রয়োজনে আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবো। অনেক নেতাই অভিযোগ করেন কর্মসূচী পালন করার সময় নেতাকর্মীদের দাওয়াত দেয়া হয় না। আমি গতকালকে ফোনে এই কর্মসূচীর বিষয়ে একজনকে দাওয়াত দিয়েছি। কিন্তু তিনি আসেন নি, ভবিষ্যতে আমাদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ দিতে পারবেন না।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম মজনু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সবুর খান সেন্টু, এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পদক আওলাদ হোসেন, কোষাধক্ষ মনিরুজ্জামান মনির, মহানগর যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক সরকার আলম, যুবদল নেতা আলী ইমরান শাকিল, মহানগর স্বেচ্ছা সেবকদল নেতা আবু আল বেলাল খান, মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু, মোঃ রোমান, দুলাল হোসেন, আবদুর রশিদ হাওলাদার, মহানগর ছাত্রছাত্র দল নেতা আরিফুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, দর্পন প্রধান, আব্দুল হাসিব, নাজমুল হক রানা, আরাফাত চৌধুরী, মেহেদী হাসান, শফিকুল ইসলাম, মুক্তাদির হৃদয়, বন্দর থানা ছাত্রদল নেতা পাপ্পু, সৌরভ, আলতাব, আনোয়ার হোসেন , জুয়েল, অভি, পাপ্পু, জিসান, জোবায়ের নুর, সোহেল, মিঠু, তোফাজ্জল, হৃদয় হোসেন, রিয়াদ, নাজমুল, রফিক প্রমূখ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here