নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে আর্ত মানবতার সেবায় যাত্রা শুরু করলো নীট কনসার্ন ফাউন্ডেশন।
শনিবার (২১ অক্টোবর) বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলি এলাকায় অবস্থিত নীট কনসার্ন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জয়নাল আবেদিন মোল্লা এবং তার সহধর্মীনি নীট কনসার্ন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শামসুন্নাহার লিপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জয়নাল আবেদিন মোল্লা বলেন, নীট কনসার্ন ফাউন্ডেশন একটি দাতব্য সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। এই ফাউন্ডেশনের কাজ হচ্ছে আর্তমানবতার সেবায় সমাজের দুস্থ এবং অসহায় মানুষদের সেবা করা। ইতিমধ্যেই আমরা এই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পাঠানটুলি এলাকায় বিভিন্ন উন্নয়নমূলক সেবার প্রস্তুতি নিয়েছি। যার মধ্যে রয়েছে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সরবরাহ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে গভীর নলকূপ স্থাপন। এছারাও এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজে এলাকাবাসী চাইলে আমরা বিনা স্বার্থে তাদের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসবো।

তিনি আরো বলেন, লোক দেখানোর জন্য যে দান করা হয়, আল্লাহ তায়ালা সেই দান কখনো কবুল করেন না। আমরা চেষ্টা করবো সর্বদা নিস্বার্থে দান করতে। নীট কনসার্ন ফাউন্ডেশন একটি অরাজনৈতিক এবং অলাভজনক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। পূর্বে থেকেই আমরা বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে অংশগ্রহণ করে আসছি। তবে এবার প্রকাশ্যে এই ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরু হলো। অদূর ভবিষ্যতেও এই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আমরা আমাদের সেবা প্রদান কর্মসূচী অব্যাহত রাখবো।

এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে নীট কনসার্নের পরিচালক কামরুজ্জামান খান বলেন, নীট কনসার্ন ফাউন্ডেশন একটি অরাজনৈতিক এবং অলাভজনক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। ফাউন্ডেশনের বর্তমান চেয়ারম্যানের হাত ধরে এই দাতব্য প্রতিষ্ঠানটি ভবিষ্যতে অনেক উন্নয়ণমূলক কাজে অংশ নিবে বলে আমি বিশ্বাস করি। এসময় তিনি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিকদের পাতিষ্ঠানিক বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার কথা তুলে ধরেন।

সভাপতির বক্তব্যে তোফাজ্জ্বল হোসেন মুকুল বলেন, নীট কনসার্ন ফাউন্ডেশন একটি দাতব্য সেবমূলক প্রতিষ্ঠান। আমরা সর্বদা চেষ্টা করি আর্তমানবতার সেবায় এগিয়ে আসতে। এখানে আমরা যারা কর্মরত অবস্থায় রয়েছি, আমরা সবাই একটি পরিবার। সকলেই একে অপরের বিপদে পাশে থাকার চেষ্টা করি। ভবিষ্যতেও আমাদের এই কর্মধারা অব্যাহত রেখে আমরা এই সেবামূলক ফাউন্ডেশনটিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবো।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে প্রথম ধাপে ২০জন প্রবীণের মাঝে ১৫’শ টাকা করে বয়ষ্ক ভাতা, ৮জন দুস্থ লোকের মাঝে ৮টি সেলাই মেশিন এবং ৬জনকে বৈদুতিক পাখা প্রদান করা হয়।
নিউ লক্ষ্মী নারায়ণ কটন মিলস এর পরিচালক তোফাজ্জ্বল হোসেন মুকুলের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নীট কনসার্নের পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা, তার সহধর্মীনি হাবিবা আক্তার, পরিচালক মনোয়ার হোসেন মোল্লা, তার সহধর্মীনি মৌসুমী হোসেন মিতু, পরিচালক কামরুজ্জামান খান, নাসিক (১০, ১১, ১২) নারী কাউন্সিলর এবং প্যানেল মেয়র-৩ মিনোয়ারা বেগমসহ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here