নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জে আলোচিত সাত খুন মামলার প্রধান আসামী সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূর হোসেনের ভাই নূর উদ্দিন বলেছেন, তার ভাইয়ের বর্তমান পরিণতির জন্য মিডিয়া দায়ী।
মঙ্গলবার (২২ আগষ্ট) সাত খুন মামলার রায় ঘোষণাকারী হাইকোর্ট বেঞ্চের এজলাসকক্ষের বাইরে নূর উদ্দিন এই প্রতিবেদককে কথা বলেন।

সাত খুন মামলায় আসামীদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের ওপর রায় ঘোষণা করেন বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিংহ ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

মামলায় নিম্ন আদালতের রায়ে র‌্যাবের সাবেক ১৬ কর্মকর্তা-সদস্য এবং নারায়ণগঞ্জের সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূর হোসেন ও তার অপরাধজগতের ৯ সহযোগীসহ মোট ২৬ জনের মৃত্যুদন্ড হয়েছে।

ছয় ভাইয়ের মধ্যে নূর হোসেনের পরই নূর উদ্দিনের অবস্থান। নূর হোসেনের ফেলে আসা ‘সা¤্রাজ্য’ এখন নূর উদ্দিনের নিয়ন্ত্রণে বলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে।

নূর হোসেনের পরিণতি প্রসঙ্গে নূর উদ্দিন বলেন, আসলে মিডিয়ার কারণেই এমন হলো। আপনি আবার মাইন্ড কইরেণ না। নূর উদ্দিনের ভাষ্য, মিডিয়ার চাপে সাত খুন মামলা তাড়াতাড়ি এগিয়েছে। এ কারণে তারা ঠিকমতো প্রস্তুতিও নিতে পারেন নি। তারা নিম্ন আদালতে আইনজীবী দেওয়ার আগেই বিচার শুরু হয়ে যায়।

নূর উদ্দিন মনে করেন, তার ভাই ছাড়া পাবেন। আর ছাড়া না পেলে তারা আইনি লড়াই চালিয়ে যাবেন।

উল্লেখ্য, বিগত ২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে অপহৃত হন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাত জন। ৩০ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা নদীতে একে একে ছয়টি মরদেহ ভেসে ওঠে। পরদিন মেলে আরো একটি মরদেহ। ঘটনার একদিন পর কাউন্সিলর নজরুলের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম ও আইনজীবী চন্দন সরকারের জামাতা বিজয় পাল বাদী হয়ে নূর হোসেনসহ র‌্যাবের ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ফতুল্লা মডেল থানায় পৃথক দু’টি মামলা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here