নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: রাজনীতিতে সম্পৃক্ত না হলেও পুত্র অয়ন ওসমানের কর্মকান্ডে গর্বিত পিতা নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ আলহাজ¦ একেএম শামীম ওসমান। আর তা হবেই বা না কেন, রাজনীতিবিদ পিতার দেখানো পথেই যে সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছেন অয়ন ওসমান।
যার ফলে হতদরিদ্র বৃদ্ধা মায়েদের কাছে পেয়ে তাকে যেমন বুকে আগলে নেন শামীম ওসমান, তেমনি বাবার মত গরীব দু:খী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের বুকে আগলে নিতে কার্পন্য বোধ করেন না অয়ন ওসমান।

যেই কারনে শামীম ওসমানের মতই তারুণ্যের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন এখন অয়ন ওসমান। ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হয়েও রাজনীতিতে সরাসরি সম্পৃক্ত না হয়ে বিচক্ষনতার সাথে মহানগর ছাত্রলীগ কে পরিচালনা করায় আদৌ পর্যন্ত কুঁড়াতে হয়নি কোন বদনাম।

সাম্প্রতিক সময়ে দেখাগেছে, ডিএনডিতে জলাবদ্ধ লাখ লাখ মানুষের দূর্ভোগ স্ব শরীরে অনুধাবন করতে ডিএনডি এলাকায় ছুটে গিয়েছিলেন অয়ন ওসমান। হাঁটু পরিমান ময়লা পানিতে নেমে এক এলাকা থেকে আরেক এলাকা ঘুরে সেখানকার বসবাসরত মানুষের খোঁজ খবর নেয়ার পাশাপাশি অসহায় মানুষদের করেন খাদ্য সামগ্রী প্রদান। তখন কয়েকজন হতদরিদ্র বৃদ্ধাকে কাছে পেয়ে অয়ন ওসমান যখন তাদের বুকে আগলে ধরেন, তখন সেই বৃদ্ধারাও তাকে জড়িয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে দোয়া করে যান।

এছাড়াও বন্যার্তদের সাহায্যার্থে অয়ন ওসমানের নির্দেশে নারায়ণগঞ্জের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে তহবিল সংগ্রহে নেমে পড়েছে মহানগর ছাত্রলীগ। যা নিতান্তই মহতি উদ্যোগ বলে মন্তব্য করেন নাগরিক সমাজ।

যেই কারনেই হয়তো সাংসদ শামীম ওসমান এখন নিজের একমাত্র পুত্র অয়ন ওসমানকে নিয়ে এতটা ‘গর্ববোধ’ করেন। সদ্য ফতুল্লায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কাঙ্গালী ভোজের খাবার বিতরনে গিয়ে স্থানীয় জনসাধারনকে তাদের সন্তানদের অয়ন ওসমানের মত ভালভাবে মানুষ হিসেবে তৈরী করার আহবান জানান।

আর নিজের সন্তানকে নিয়ে ‘গর্ব’ করা বাবার কথা শুনে স্থানীয়রা তখন মন্তব্য করেন সত্যিই পুত্র অয়ন ওসমানের জন্য গর্বিত বাবা শামীম ওসমান।

এরপ্রেক্ষিতে অয়ন ওসমান তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে মন্তব্য করেন, ‘আমার নেতা হওয়ার বা রাজনীতি করার কোনো ইচ্ছা বা চাহিদা নাই। নারায়ণগঞ্জের উন্নয়ন, আমার বাবার সাথে যারা রাজনীতি করেন উনাদের সুন্দর জীবনযাপন এবং মোস্ট ইমপোরটেন্টলী নারায়ণগঞ্জবাসীর নিরাপত্তা এবং শান্তির জীবনযাপন। এই তিনটে জিনিস বজায় রাখতে পারলেই আমি নিজেকে সফল মনে করবো।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here