নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র বিক্ষোভ সমাবেশ ভন্ডুল করে দিয়েছে পুলিশ। যার ফলে রাজপথে আর দাঁড়ানোর সুযোগ না পেয়ে বাধ্য হয়ে বাসগৃহে যেতে হয়েছে নেতাকর্মীদের। পরবর্তীতে সেখানেই বিক্ষোভ সভা করে মহানগর বিএনপি।

বুধবার (২৫ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি পালনের উদ্দেশ্যে নেতাকর্মীরা জড়ো হওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় জুয়েল নামে এক যুবদল কর্মীকে আটক করে পুলিশ।


সরেজমিনে বুধবার নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে দেখা যায়, বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নিতে সকাল দশটার মধ্যে সেখানে উপস্থিত হন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সহ সভাপতি এড. জাকির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, যুগ্ম সম্পাদক শওকত হাশেম শকু, সাংগঠনিক সম্পাদক আ: সবুর খান সেন্টু, আবু আল ইউসুফ খান টিপুসহ বেশ কিছু নেতাকর্মী। কিন্তু পুলিশ বাঁধা দিয়ে নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় এবং জুয়েল নামে এক যুবদল কর্মীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় পুলিশের সাথে এড. জাকির হোসেন ও এটিএম কামালের বাদানুবাদ হয়।


পুলিশের বাঁধার মুখেই নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, আমরা শান্তিপূর্নভাবে কর্মসূচি পালন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশের বাঁধার কারনে করতে পারলাম না। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই। প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ করতে কোন অনুমতির প্রয়োজন হয় না। যে কেউ ইচ্ছা করলেই করতে পারে। এটা সকলের নাগরিক অধিকার। কিন্তু আমাদের সেই অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হলো।


পুলিশের বাঁধার মুখে ছত্রভঙ্গ হয়ে নেতাকর্মীরা সংগঠনের সভাপতি এড. আবুল কালামের বাসায় মহানগর বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে গিয়ে প্রতিবাদ সভায় অংশ নেয়।


বিএনপি’র সমাবেশে বাঁধা প্রদানের বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর শাহীন শাহ পারভেজ বলেন, ‘অনুমতি ছাড়া সভা করায় ছত্রভঙ্গ করে দেয়া হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here