নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: পুলিশের বাঁধা ও ব্যানার কেড়ে নেয়ার পরেও সকল বাঁধা উপেক্ষা করে নারায়ণগঞ্জে শ্রমিক র‌্যালী ও সমাবেশ করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি।
মঙ্গলবার (১ মে) সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে জড়ো হয়ে জেলা বিএনপি’র নেতাকর্মীরা শ্রমিক র‌্যালীর প্রস্তুতিকালে পুলিশ তাতে বাঁধা দেয় এবং ব্যানার কেঁড়ে নেয়। এ সময় পুলিশের সাথে নেতাকর্মীদের ব্যানার নিয়ে টানা হেঁচড়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে শহরে শ্রমিক র‌্যালী করে মিশনপাড়ায় গিয়ে সমাবেশ করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি।

সমাবেশে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান বলেছেন, শহীদ জিয়া ছিলেন শ্রমিকদের অহংকার। তিনি শ্রমিকদের সুযোগ সুবিধার দিকটি গুরুত্ব দিয়ে দেখতেন। অথচ বর্তমানে শ্রমিকেরা তাদের নূন্যতম মজুরি টুকুও পাচ্ছে না। প্রতিনিয়তই তারা তাদের ন্যায্য মজুরি আদায়ের দাবীতে মিছিল-মিটিং করে যাচ্ছে।


কাজী মনির আরো বলেন, একটি লোক হাসানো মামলা দিয়ে এই স্বৈরাচারী সরকার দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দী করে রেখেছে। দেশ তেকে কোটি কোটি টাকা এই সরকারের মন্ত্রীরা বিদেশে পাচার করে দিলেও সরকারের সেদিকে কোন ভ্রুক্ষেপ নেই। অথচ মাত্র দুই কোটি টাকার মামলায় গণতন্ত্রের মা খালেদা জিয়াকে বিগত আড়াই মাস যাবৎ বন্দী করে রেখেছে। পৃথিবীর ইতিহাসে কোন স্বৈরশাসকই বেশি দিন টিকে থাকতে পারেনি। এই সরকারও সেটা পারবে না।

জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ বলেন, এই সরকার ক্ষমতার মসনদে এতোটাই অন্ধ যে, পূনরায় ক্ষমতায় আসতে তারা নিজেদের ইচ্ছেমতো বিরোধী দল কে হয়রানী করে যাচ্ছে। তারা চাইছে বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রেখে পূনরায় ক্ষমতায় আসতে। যাতে করে তারা এদেশে রাজতন্ত্র কায়েম করতে পারে। আমি অবিলম্বে আমাদের মা খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবী করছি। অন্যথায় ভবিষ্যতে এই স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাতে বৃহৎ আন্দোলন অনুষ্ঠিত হবে।

জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস বলেন, আমাদের দাবী একটাই, আমরা আমাদের মা বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি চাই। যতোদিন তাকে কারামুক্ত করা না হবে, ততোদিন আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো। মায়ের মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত আমরা ঘরে ফিরবো না।

নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক ও ফতুল্লা থানা কমিটির সভাপতি মো: মন্টু মেম্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শ্রমিক সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সংসদ সদস্য আতাউর রহমান আঙ্গুর, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আজহারুল ইসলাম মান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান রোজেল, সহ সাংগঠনিক রুহুল আমিন শিকদার, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান, সোনারগাঁ থানা শ্রমিক দলের সভাপতি মো: মজিবুর রহমান প্রমূখ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here