নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি: কানাডা প্রবাসী ছেলে ও তার স্ত্রীর নামে “নো অবজেকশন সার্টিফিকেট” (এনওসি) পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করাতে গিয়ে বেকায়দায় পড়েছেন সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি কান্দাপাড়া এলাকার মোঃ আব্দুল হক। তিনি নিয়ম অনুসরণ করে নারায়ণগঞ্জের সোনালী ব্যাংক কর্পোরেট শাখায় ৫’শত করে ১ হাজার টাকা ফি জমা দিয়ে অনলাইনে আবেদন করেন। পরে তিনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের দায়িত্বরত মুন্সী জুয়েলের সাথে দেখা করেন।

এসময় মুন্সী জুয়েল প্রবাসীর পিতা মোঃ আব্দুল হককে বলেন, আপনার ছেলে স্ত্রীসহ কানাডা থাকেন। তাহলে তো অনেক টাকা ইনকাম করে। এটা করতে গেলে খরচ লাগে ১৫ হাজার টাকা। ওসি সাত্তার স্যার অনেক রাগি মানুষ। তাকে কম টাকা দিয়ে করাতে পারবো না। আমরা একেকটি করতেই ১০ হাজার টাকা নিয়ে থাকি। দুইটা একসাথে নিয়ে আসছেন, তাই একটু কমে বলে দিলাম। এসময় প্রবাসীর পিতা মোঃ আব্দুল হক বলেন, আমি এত টাকা কোথায় থেকে দেবো। এসময় মুন্সী জুয়েল তাকে বলেন, আপনার এ কাজ করতে গেলে, একজন এসআইকে পাঠাতে হবে। আপনি ওসি স্যারের সাথে কথা বলে দেখেন?। ওসি স্যার (আব্দুস সাত্তার) অনেক রাগি মানুষ, আমি তার সাথে কথা বলতে পারবো না। এসময় প্রবাসীর পিতা আব্দুল হক থানা থেকে বের হয়ে পাশে চায়ের দোকানে গিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। মোঃ আব্দুল হকের ছেলে মোঃ রাশেদুল হক ও তার স্ত্রী ফাতেমাতুজ জোহরা কানাডায় থাকেন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আব্দুস সাত্তার জানান, এ বিষয়ে কেউ আমার নিকট অভিযোগ করেনি। অভিযোগকারীকে আমার নিকট পাঠিয়ে দেন, আমি বিষয়টি দেখবো? বলে তিনি জানান।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here