নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: পুলিশ যদি আসামীদের সাথে আতাঁত করে চলে সে দেশে শান্তি কোথায় থেকে আসবে? আসামীরা সাধারণত পুলিশকে দেখে ভয় পায় এবং পালিয়ে বেড়ায়। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানায় তার উল্টো চিত্র। স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সুমন হত্যার প্রধান আসামী আন্ডা রফিককে রূপগঞ্জ থানার এসআই মনির তাকে গ্রেফতার না করে প্রটোকল দিয়ে শোডাউন করেছে। যা দেখে জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। পুলিশ আসামীদের সাথে আতাঁত করে চলার কারণে রূপগঞ্জ উপজেলায় হত্যার পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সরোজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে রূপগঞ্জে শোডাউন করে কায়েরতপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী সুমন হত্যা মামলার প্রধান আসামী রফিকুল ইসলাম ওরফে আন্ডা রফিক।

যা দেখে রীতিমত আতঁকে উঠেন রূপগঞ্জবাসী। আর পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। তারা অভিযোগ করেন, বিনা দোষে পুলিশ বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করলেও ক্ষমতাসীন দলের হত্যা মামলার আসামীকে প্রটোকল দিচ্ছেন। আর এতেই বোঝা যায় পুলিশ এখন আওয়ামীলীগের কর্মী হয়ে গেছে।

অভিযোগ রয়েছে, রূপগঞ্জ থানার এসআই মনির সরকারি দায়িত্ব পালন না করে বিভিন্ন ভূমিদস্যুদের সাথে আতাঁত করে অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। এসআই মনির মাদক সেবনের পাশাপাশি সমাজের নিরীহ মানুষকে ফাঁদে ফেলে অসৎ উপায়ে অর্থ উপার্জনে লিপ্ত রয়েছে। তার মদদে ছড়িয়ে পড়ছে রূপগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মাদকের চালান। স্থানীয় জনগণ তার দায়িত্ব প্রাপ্ত এলাকায় যদি কোন সমস্যা নিয়ে যায় ভুক্তভোগীদের সাথে খারাপ আচরণ করছে।

আন্ডা রফিক রূপগঞ্জ উপজেলার একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী এবং ভূমিদস্যু। সাধারণ জনগণকে এসআই মনির নিরাপত্তা না দিয়ে সন্ত্রাসী রফিককে প্রটোকল দেওয়ায় ক্ষুব্ধ সমাজের বিশিষ্ট জনেরা।

এব্যাপারে জানতে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি মুঠোফোন রিসিভ করেননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here