নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, বন্দর প্রতিনিধি: পারিবারিক কলহের জের ধরে ছোট সতিন ও তার পালিত সন্ত্রাসী কর্তৃক প্রথম স্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছুরিকাঘাত করে আহত করার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে আহত প্রথম স্ত্রীর পিতা আনোয়ার আলী বাদী হয়ে বন্দর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। যার মামলা- ৬০(১১)১৭ ধারা- ৩২৪/ ৩২৬/ ৩০৭/ ৩৭৯/ ৫০৬/ ১১৪/৩৪ দঃবিঃ।

এ ঘটনায় পুলিশ বুলবুল (৩২) নামে এক হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃত সন্ত্রাসী বুলবুল বন্দর থানার দক্ষিন কুলচরিত্র এলাকার মোজাম্মেল হক মিয়ার ছেলে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ বছর পূর্বে ঢাকা ডিএমপি মুগদা থানার উত্তর মুগদাস্থ মদিনাবাগ এলাকার আনোয়ার আলী মিয়ার মেয়ে শিউলী বেগমের সাথে বন্দর নোয়াদ্দা এলাকার আমির হোসেন মিয়ার ছেলে আব্দুর রাজ্জাক ওরফে রিতু ্ইসলামি শরিয়ত মোতাবেক বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসারে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। এর ধারাবাহিকতায় লম্পট স্বামী আব্দুর রাজ্জাক মিয়া প্রথম স্ত্রী থাকা সত্বেও সে পুনরায় বন্দর স্বল্পের চক এলাকার আব্দুর রাজ্জাক মিয়ার মেয়ে রিংকি আক্তারকে সে ২য় বিবাহ করে।

লম্পট আব্দুর রাজ্জাক ২য় বিবাহ করার কারনে প্রথম স্ত্রীকে ভরন পোষন করতে ব্যার্থ হয়। এই ঘটনায় গত ২০ নভেম্বর বেলা ১২টায় ছোট সতিন রিংকি আক্তার ও বুলবুল এবং নবীগঞ্জ কামাল উদ্দিনের মোড় এলাকার হাবিব মিয়ার ছেলে হাসান মিলে ০১৬- ৭৪১২১৩৯০ নাম্বার থেকে বাদীর মেয়ে প্রথম স্ত্রী শিউলী বেগমের ব্যবহারকৃত ০১৬-৭৪১২১৩৯০ নাম্বারে মোবাইল ফোন করে ফনকুল এলাকায় ডেকে নিয়ে ধারালো অস্ত্রদিয়ে ছুরিকাঘাত করে জখম করে।

এ ঘটনায় বন্দর থানায় মামলা দায়ের হলে পুলিশ মামলা দায়েরের ওই রাতে সন্ত্রাসী বুলবুলকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার দুপুরে তাকে আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here