নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আবহমানকাল থেকেই আমাদের সত্ত্বায়, চেতনায় ও অনুভবের জগতে এক গভীরতর মধুর সম্পর্ক নিয়ে বিরাজ করছে বৈশাখ।

পহেলা বৈশাখ পুরনো জীর্ণকে ঝেড়ে ফেলে আমাদের যাপিত জীবনে নতুন সম্ভাবনা ও নতুন প্রত্যাশা জাগিয়ে তুলতেই শুধু নয়, অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে একাকার হওয়ার প্রেরণাও জোগায়।


আর তাই তো বাঙালির জীবনে সবচেয়ে বড় অসাম্প্রদায়িক সার্বজনীন প্রাণের উৎসবকে আরো রঙিনময় করে তুলতে যেন এদিন নারায়ণগঞ্জবাসীরও কোন দিকে পিছিয়ে ছিল না।

 

 

শনিবার (১৪ এপ্রিল) রং বেরংয়ের মুখোশ, ফেস্টুন, বাহারী সাজ, পাঞ্জাবী, শাড়ী পরিধান করে, কেউবা মুখে শুভ নববর্ষ চিত্রায়িত করে মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ গ্রহণ, আনন্দ উল্লাস আর গাণের সুরে বাংলা নববর্ষ উদযাপন করে শিশু থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত নারী পুরুষ আমজনতা।

 

 

 

এদিন প্রত্যুষে পূব আকাশে নতুন সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নগরীর চাষাড়াস্থ কেন্দ্রীয় পৌর শহীদ মিনারে বৈশাখের গানের সুরে বাংলা নতুন বছর ১৪২৫ কে বরণ করে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের শিল্পীরা।

এরপর সকাল ৮ টায় নগরীর চাষাড়া থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে নগরীতে বের করা হয় বর্ষবরণের বর্ণিল মঙ্গল শোভাযাত্রা।

 

 

সকাল ৯ টায় শহীদ মিনার প্রাঙ্গন থেকে সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে চারুকলা ইনস্টিটিউটের সহযোগিতায় নগরীতে বের করা হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা।

 

 

 

 

সকাল সাড়ে ৯ টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গনে নববর্ষ উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিত হয় মনমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আয়োজন করা হয়েছিল বৈশাখের পান্তা-ইলিশ খাওয়ার।
এছাড়াও নগরীর বিভিন্ন স্থানে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাঁকজমক ভাবে উদযাপিত হয় রঙিনময় বর্ষবরণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here