নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার গোপীনাথ দাস বলেছেন, জঙ্গীদের মাধ্যমেই ডা. জাফর ইকবালের উপর তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সেদিন তার পেছন দিক থেকে হামলা করা হয়েছিল। সারা দেশে একের পর এক বর্বর আর নৃশংস ঘটনা ঘটেই চলেছে। দেশের সকল স্থানে মন্দিরের পুরোহিতদের হত্যা করা হচ্ছে। মসজিদ, মন্দির আর গীর্জায় হামলা করা হচ্ছে। হিন্দুদের বাড়ি ঘড়ে হামলা হচ্ছে। এই নারায়ণগঞ্জ থেকে হিন্দুদের বহু জমি জবর দখল করা হচ্ছে তার কোন প্রকার সুরাহা হচ্ছে না।

শনিবার (১০ মার্চ) বিকাল ৫টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনের সামনে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর এবং বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আয়োজিত ড. জাফর ইকবালের হত্যা প্রচেষ্টাকারী ও ধর্ম অবমাননার দায়ে আনিস আলমগীরকে গ্রেফতার মঠ মন্দির, গীর্জায় হামলা বন্ধ, ঢাকেশ্বরী মন্দিরের ১৪বিঘা জমি ফিরিয়ে দেয়া এবং সংখ্যালঘুদের প্রানের দাবি ৭ দফা, নির্বাচনী ৫ দফার দাবিতে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কমান্ডার গোপীনাথ আরো বলেন, পুলিশ কষ্ট করে জঙ্গী ধরবে আর কোর্ট থেকে তারা স্বাচ্ছন্দে ছাড়া পাবে এ কেমন দৃশ্য দেখছি আমরা।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, মন্ত্রী দেশে শিক্ষা ব্যবস্থাকে কলুষিত করেছেন। তার মুখে আর অন্তরে আতœীয়করন লেগে গেছে। দেশে রাজাকার, আল বদর আর আল সামসরা চাকুরী পাচ্ছেন শুধুমাত্র এই আতœীয়করন করার তারনে। মনে রাখবেন সামনের দিনগুলো খুব কঠিন আসছে।

তিনি আরো বলেন, আমি আমার প্রিয় বোন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ করে বলতে চাই, আপনি ওই মোস্তাকদের বকল থেকে দেশকে আর নিজেকে রক্ষা করুন। তা না হলে আপনার বাবার স্বপ্ন ধুলিসাৎ হয়ে যাবে আর দেশটা হয়ে যাকে পাকিস্তান। আমরা এখনও বুড়া হই নাই, আমরা পূনরায় যুদ্ধের জন্য প্রস্তুুত আছি। অবিলম্বে ডা. জাফর ইকবালের উপর নৃশংস হামালার বিচার চাই। প্রয়োজনে দোষীদের ফায়ার স্কোয়াডে দাঁড়িয়ে হত্যা করা হোক। সারা দেশের হিন্দুদের জমি উদ্ধারে প্রশাসন আর এমপি মহাদয়দের সাহায্য চাই আমরা।

বাংলাদেশের প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ ড. জাফর ইকবালের উপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জ জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের মানববন্ধনে নারায়ণগঞ্জ মহানগর পূজা উদযাপণ পরিষদের পক্ষে এতাত্মতা প্রকাশ করেন সংগঠনের মহানগর পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার শিপন, সেই সাথে তিনি এই ন্যাক্কারজনক হামলায় জড়িতদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন।

অনুষ্ঠানে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারন সম্পাদক সুজন সাহা, শ্রী প্রদীপ রায় প্রমূখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here