নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, বন্দর প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ বন্দরে প্রেমিকের সামনে প্রেমিকাকে রাতভর গণধর্ষণ করেছে ৩ মাস্তান যুবক। পুলিশ ধর্ষক মাস্তান আ: লতিফ (৩৫) কে গ্রেফতার করেছে। গত রোববার রাতে বন্দরের দেওয়ানবাগীর আস্তার পিছনে ছোটবাগ এরাকার একটি পরিত্যাক্ত বাগানে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ধর্ষণের শিকার যুবতিকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ ব্যপারে ধর্ষিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে।

ধর্ষণের শিকার যুবতি জানান, গত রোববার রাতে তার প্রেমিক বন্দরের দেওয়ানবাগ এলাকার মৃত আ: মান্নান মিয়ার ছেলে মাস দের সাথে দেখা করার জন্য ছোটবাগ এলাকায় এসে দুইজনে কথা বলার সময় ছোটবাগ এলাকার মজনু মিয়ার সন্ত্রাসী ছেলে লিটন, দেওয়ানবাগ এলাকার সুরুজ মিয়ার ছেলে সুজন ও পঞ্চগড় জেলার তেতুলিয়া থানার বরভারী গ্রামের মৃত গিয়াসের ছেলে দেওয়ানবাগ এলাকার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী আ: লতিফ মিলে তাদের আটক করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা তাদের কাছে উভয়ের পরিচয় জানতে চায়। তখন উভয়ে সন্ত্রাসীদের ভয়ে নিজেদের স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দেয়। তখন সন্ত্রাসীরা তাদের আলাদা করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে সন্ত্রাসীরা তাদের অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে প্রেমিক-প্রেমিকাকে একটি পরিত্যাক্ত বাগানে নিয়ে গিয়ে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। প্রেমিক-প্রেমিকার কাছে মাত্র ৪ হাজার টাকা ছিল। সন্ত্রাসীরা ৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে বাকি ৬ হাজার টাকার জন্য প্রেমিককে গাছের সাথে বেঁধে রেখে রাতভর প্রেমিকা যুবতিকে ৩ সন্ত্রাসী মিলে জোর পূবর্খ গণধর্ষণ করে। যুবতির চিৎকারে এলাকাবাসী প্রেমিক-প্রেমিকাকে উদ্ধার করে পুলিশে সংবাদ দেয়। পুলিশ গতকাল সোমবার সকালে প্রেমিক-প্রেমিকাকে উদ্ধার করে যুবতিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠায়। এ ব্যপারে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যনত চিকিৎসক জানান, ডাক্তারী পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। এবং যুবতিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ ব্যপারে বন্দর থানার ওসি আবুল কালাম ধর্ষণের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় সন্ত্রাসী আ: লতিফকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি ২ ধর্ষককে গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here