নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি: সিদ্ধিরগঞ্জে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৭ম শ্রেণীর এত ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাতভর উত্তর কদমতলী এলাকায় একটি ফ্ল্যাট বাসায় আটক রেখে ওই ছাত্রীর প্রেমিক আব্দুস সালাম ও তার ৫-৬ জন বন্ধু ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ঘটনার প্রধান আসামী আব্দুস সালাম (৩৫)কে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুস সাত্তার মিয়া।

মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ৭ম শ্রেণীর ওই ছাত্রীর সঙ্গে আব্দুস সালাম মোবাইল ফোনের মাধ্যমে এক বছর ধরে সম্পর্ক করে আসছিল। প্রেমের ফাঁদে ফেলে গত সোমবার বিকেল ৪টায় মেয়েটিকে ফুসলিয়ে আব্দুস সালাম তার বন্ধু ইমরানের ভাড়া করা উত্তর কদমতলীর একটি ফ্ল্যাট বাসায় নিয়ে যায়। এরপর ওই ফ্ল্যাটে রাতভর আটক রেখে আব্দুস সালাম ও তার বন্ধুরা ওই ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। মঙ্গলবার সকাল ৭টায় মেয়েটি বাসায় ফিরে তার মায়ের কাছে ঘটনাটি অবহিত করলে রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ রাতেই গোদনাইল এনায়েতনগর এলাকার রহমত আলী মোল্লার ভাড়াটিয়া বাড়ি থেকে আব্দুস সালামকে পুলিশ গ্রেফতার করে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই রাকিবুল ইসলাম জানান, গ্রেফতারকৃত আসামী আব্দুস সালাম কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার আল্লাহর দরগা এলাকার নাজিমউদ্দিনের ছেলে। সে গোদনাইল নীট কনসার্ণ গ্রুপের নিটিং সেকশনের শ্রমিক।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস সাত্তার মিয়া জানান, গণধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষিতা নিজেই বাদী হয়ে আব্দুস সালামসহ ৫-৬ জনকে আসামী করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনায় মূল আসামী আব্দুস সালামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে এবং ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ওই ছাত্রীকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here