নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, ফতুল্লা প্রতিনিধি: ফতুল্লার ঘোষেরবাগ এলাকায় যৌতুকের দাবীতে স্ত্রী কে মারধর করে পাষন্ড স্বামী রফিক। স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে শুক্রবার রাতে স্ত্রী সাথী আক্তার বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় স্বামীসহ ৪/৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে।
এ মামলার অভিযোগে জানাযায়, ফতুল্লার দক্ষিন ঘোষের বাগের এলাকার আলা উদ্দিনের মেয়ে সাথী আক্তার (৩০)। সে ইসলামের শরীয়ত মোতাবেক গত ১৩ বছর আগে রফিকুল ইসলাম রফিক (৩৮) কে বিবাহ করেছে। বিয়ের পর থেকে তাদের দাম্পত্য জীবনে একটি পুত্র সন্তান হয়। তাদের সন্তানটি জন্ম থেকেই প্রতিবন্ধি ছিলো। সন্তানসহ স্ত্রীকে নানাভাবে রফিক ও তার পরিবার যৌতুকের দাবীতে নির্যাতন করে আসছে। গত বছর ১৩ অক্টোবর ২০১৭ইং সন্তানটি মারা যায়। এরপরও রফিক তার স্ত্রীকে যৌতুকের জন্য নানাভাবে নির্যাতন করে আসছে। সাথীর সুখের জন্য তার বাবা মা রফিককে ৩ লক্ষ টাকা দিয়েছিলো ব্যবসা করার জন্যে কিন্তু এরপরও সাথীকে নির্যাতন থেকে রেহাই দেয়নি তার স্বামী। গত ৯ এপ্রিল ৫ লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য চায় রফিক। এতে স্ত্রী সাথী রাজি না হওয়ায় রফিক বেলা ২টায় স্ত্রী সাথীকে মারধর করে রক্তাক্ত জখম করেছে। রফিক একই এলঅকার আলফাজ উদ্দিন শাহের ছেলে। রফিক তার ভাই মাহফুজ (৩৪), হানিফ(৩২), রুমা (৪০), হাসনা বেগমের উস্কানীতে স্ত্রী সাথীকে নির্যাতন করে আসছে।

সাথী জানান, তার স্বামী ও তাদের পরিবারের লোকজনের নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে ফতুল্লা থানায় মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং ৫০(৪)১৮।

এদিকে, রফিকের আত্মীয়রা জানান, সাথী তার স্বামী রফিক ও তাদের পরিবারের সকলের অবাধ্যে চলাফেরা করে কারনে অকারনে ঝগড়া বিবাদ করে আসছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here