নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ফের ভ্যাপসা গরম আর বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন নগরবাসী।
বুধবার (৪ অক্টোবর) সারাদিন বিদ্যুতের যাওয়া-আসার ভেলকিবাজিতে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে নগরবাসীকে। একদিকে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব, অপরদিকে লোডশেডিং যন্ত্রনা বৃদ্ধি পাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছে নগরবাসী।

বৈদ্যুতিক লোড কমানোর স্বার্থে বর্তমানে নিতাইগঞ্জ, তোলারাম মোড়, শীতলক্ষ্যা, তামাকপট্টী, ডাইলপট্টী, টানবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুত সংযোগ আলাদা করে দেয়া হলেও লোডশেডিংয়ের মাত্রা কোন ক্রমেই যেন কমছে না।

নগরীর কয়েকজন বাসিন্দার সাথে কথা বলে জানা যায়, বুধবার ব্যাপক লোডশেডিং হয়েছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রতি ঘন্টা অন্তর লোডশেডিং হয়েছে। ঘনঘন লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ নগরবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। তারা বলছেন, নগরীতে বিদ্যুতের হলো টা কী? এতো ঘনঘন লোডশেডিং আর সহ্য হচ্ছে না।

সারাদিন বিদ্যুতের ভেলকিবাজি দেখতে হয়েছে নগরবাসীকে। প্রায় সারাদিনই তেমন বিদ্যুত ছিল না।

জানা যায়, গত কয়েক দিন ধরে নগরীতে লোডশেডিং চলতে থাকলেও বুধবার এর মাত্রা চরম আকারে ধারন করে। অব্যাহত লোডশেডিংয়ের কারনে কর্মস্থল কিংবা বাসা বাড়ীতে কোথাও স্বস্তির নি:শ^াস ফেলতে পারছে না জনসাধারন।

ডিপিডিসি নারায়ণগঞ্জ জোন সূত্রে জানাগেছে, শীতলক্ষ্যা গ্রীডে বিদ্যুতের উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় লোডশেডিংয়ের মাত্রাটা বেড়ে গেছে। তবে শীঘ্রই বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়ে উঠবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here