নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, বন্দর প্রতিনিধি: বন্দরে বিচারকদের দায়িত্ব অবহেলার কারনে আবারও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষের ঘটনায় সন্ত্রাসী খান মাসুদ বাহিনী দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ছাত্রলীগ নেতা দোলন হাসান (২৫) কে হত্যার উদ্দেশ্যে নৃশংস ভাবে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে জখম করে।
বুধবার বিকেল ৪ টায় বন্দর স্কুলঘাট’স্থ দেলোয়ার মিয়ার চায়ের দোকানে এ হামলার ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় এলাকাবাসী আহতকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢামেক হাসপাতালে প্রেরণ করা র্নিদেশ প্রদান করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সন্ত্রাসী রাজিব মোবাইল ফোনে দোলনকে বন্দর স্কুল ঘাটে ডেকে আনে। ওই সময় উৎপেতে থাকা সন্ত্রাসী খান মাসুদ বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড ও বন্দর নুরবাগ এলাকার নুরুল ইসলাম ওরফে পাতলা মিয়ার ছেলে রাজু, বন্দর রেলী আবাসিক এলাকার শান্ত,নুরুজ্জামান,রাজু-২,নান্টু,সোহেল, সোহাগসহ ৪/৫ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ দেশীয় ছাত্রলীগ নেতা দোলন হাসানকে হত্যার উদ্দেশ্যে নৃশংস ভাবে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে জখম করে পালিয়ে যায়। সংঘর্ষের ঘটনার সংবাদ পেয়ে বন্দর ফাঁড়ী পুলিশ দ্রুত ঘঁটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

এ ঘটনায় ২ এলাকার মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। জানা গেছে, ঈদের পরদিন সকালে ও রাতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বন্দর থানার নূরবাগ দত্তবাড়ী এলাকার মধ্যবর্তী স্থানে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানিয়েছে, দুই এলাকার সংঘর্ষের ঘটনার পর থেকে সন্ত্রাসী রাজু ও ছাত্রলীগ নেতা দোলনের মধ্যে ফেইসবুকে কুরুচিপূর্ন স্ট্যেটাস লিখে বাজে কমেন্স করে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিবেদ সৃষ্টি হয়। এর জের ধরে বুধবার বিকেলে সন্ত্রাসী খান মাসুদের নেতৃত্বে দোলনের উপর হামলা করা হয়।

এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত আহত ছাত্রলীগ নেতা দোলন হাসানের অবস্থা আশংকা জনক বলে হাসপাতাল ও তার পরিবার সূত্রে জানা গেছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here