নিউজ প্রাচ্যেরে ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া বলেছেন, বর্তমান সমাজে হিজড়ারা কোন ব্যাধি নয়, তারা তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ। তারাও আপনার আমার মত মানুষ। জন্ম হয়েছে সকলের আবার মৃত্যুও হবে সকলের।
মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২ টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে হিজড়া জনগোষ্ঠির জীবন মান ‘উন্নয়ন’ শীর্ষক সেমিনার ও ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে হিজড়া জনগোষ্ঠির জীবনমান উন্নয়ন শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় ৫০ দিন ব্যাপী প্রশিক্ষনের সনদপত্র বিতরন ও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, একদিন আমি আপনি সকলেই মরবো। আর হিজড়ারাও একদিন মরবে। হিজড়াদের সৃষ্টিকর্তা বিধাতা আর আমাদের সৃষ্টিকর্তা ওই একজনই। জন্ম নিয়ে কারোই আক্ষেপ করা ঠিক নয়। সৃষ্টিকর্তার কাছে আমরা অনেক কিছুই চেয়ে পাই না। তাই মনে রাখবেন আমাদের একটাই পরিচয় আমরা সকলেই মানুষ। আপনাদের কাছে আমি আশা করব আপনারা কাউকে ছোট করে, হেয় করে কারো কাছে দারস্থ হবেন না।

বিশেষ অতিথি জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ এহসানুল হক বলেন, বেআইনী কিছু করা যাবে না। কাউকে ছোট করা যাবে না। উদ্ভিদ ও প্রানী জগতের এই লিঙ্গ রয়েছে এটা চিন্তার কোন কারন নেই। নিজেরা যতটুকু পারেন সাবলম্বী হয়ে নিজের উপার্জন দ্বারা চলবেন। সরকার আপনাদের পূর্ণবাসনের বিষয়টি যতেষ্ঠ গুরুত্বের সাথে দেখছেন।
জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোঃ হেলাল উদ্দিন ভূইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আরো বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিক্ষা ও আইসিটি (উপ-সচিব) মোঃ ছারোয়ার হোসেন, (সার্বিক) জসিম উদ্দিন হায়দার।
উল্লেখ্য চলতি অর্থ বছরে ১২ জন হিজড়াকে বিউটিশিয়ান কাজে এবং ১৮ জন হিজড়াকে সেলাই কাজের প্রশিক্ষন দেওয়া হয়েছে। চলতি বছরে আরো ৫০ জনকে প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে। পরে প্রশিক্ষিত হিজড়াদের হাতে নগদ টাকার চেক প্রদান করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here