নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও ক্রান্তি খেলাঘর নারায়ণগঞ্জ এর উপদেষ্টা ডা. সেলিনা হায়াত আইভী বলেছেন, ‘অনেক বাধা অতিক্রম করে এই নারায়ণগঞ্জ শহরের কাজ করতে হয় আমাকে। বাঁধা না আসলে কাজ করার কোন মজা নাই। নারায়ণগঞ্জবাসী হয়ত দেখেছেন নগরীর বিনোদন সুপার মার্কেট ভাঙ্গার সময় আমি এগ্রেসিভ মুডে ছিলাম। ভাঙ্গার সময় যে কোন মানুষের মন মানসিকতা ওই রকমই থাকে। আমার ভুল হয়ে গেছে আরও ৫ বছর আগেই এই সিদ্ধান্তটা আমার নেওয়া দরকার ছিল। তাহলে সাংস্কৃতিক কর্মীদের জন্য চুনকা পাঠাগারটি নারায়ণগঞ্জ শহরে একটি মাইলক ফলক হয়ে থাকতো।’

শুক্রবার (২৯ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় শহরের ডিআইটিতে আলী আহমেদ চুনকা পাঠাগারের সামনে ক্রান্তি খেলাঘর আসরের ৩০ বছর পূর্তি উৎসব ও সম্মেলন ২০১৭ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


আইভী আরো বলেন, ‘আমি নারায়ণগঞ্জবাসীর পাশি আছি এবং থাকবো। কে কোন দল করেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে বসে এটা আমার দেখার বিষয় না। নারায়ণগঞ্জবাসীর সেবা ও সকল কাজের উন্নয়ন আমি করতে চাই। সে হোক খেলাধুলায়, সংস্কৃতিতে, রাজনীতিতে আর সামাজিকতায়। ২০০৩ সাল থেকে আমি এই ক্রান্তি খেলাঘরের সাথে জড়িত। এই খেলা ঘরের সকলেই আমার আত্মার আত্মীয়। ছোট ছোট সোনামনিরা তোমরা আমার জন্য দোয়া করবে আমি যেন তোমাদের জন্য আর বেশী কিছু করে দিতে পারি। আলী আহমেদ চুনকা পাঠাগারের ছাদটি খোলা রাখা হয়েছে যাতে করে এই ছোট ছোট সোনামনিরা খোলা আকাশ আর পাখি দেখতে পারে।’

অনুষ্ঠানে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ক্রান্তি খেলাঘর এর কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, জেলা সভাপতি রথিন চক্রবর্তী, ডা. আলী আজগর, এড. জিয়াউল ইসলাম কাজল, ভবানী শংকর রায়, মনোয়ারা সুরুজ, এড. নুরুল ইসলাম, নাসিক ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরন বিশ্বাস সহ প্রমূখ।

পরে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী ক্রান্তি খেলা ঘরের ছোট শিশুদের সাথে র‌্যালিতে অংশ গ্রহন করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here