নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনে বিএনপির প্রার্থী নজরুল ইসলাম আজাদের গাড়ী বহরে প্রতিপক্ষের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
বুধবার (১২ ডিসেম্বর) দিনব্যাপী গণসংযোগ শেষে নজরুল ইসলাম আজাদের গাড়ী বহর রাতে ফেরার পথে হাইজাদী ইউনিয়নের উদয়ন্দী গ্রামে আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী বর্তমান এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর অনুসারীরা দেশীয় অস্ত্রসহ সজ্জিত হয়ে অতর্কিত হামলা চালায়।


এ সময় হামলায় পনের জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত বিএনপি নেতা মোস্তফা ও সুমনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকীরা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

বিএনপি মনোনীত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী নজরুল ইসলাম আজাদ অভিযোগ করেন, আওয়ামীলীগের প্রার্থী সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবুর নির্দেশেই তাঁর অনুসারীরা আমার গাড়ী বহরের উপড় অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। আমার গণসংযোগের প্রথমদিনই ধানের শীষের গনজোয়ার দেখে বাবুর ভীত নড়ে গেছে। তাই বাবুর নির্দেশে যুবলীগ ক্যাডার বিপ্লবের নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্রসহ সজ্জিত হয়ে কয়েকশ স্থানীয় ও বহিরাগত সন্ত্রাসী এই অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। দশটি গাড়ী ভাঙচুর করা হয়েছে। হামলায় বিএনপির ১৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত দুই জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে আর বাকীরা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।


তিনি আরো বলেন, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে সরকার দলীয় এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর নির্দেশে এই ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং নির্বাচন কমিশন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে সুবিচার প্রার্থনা করছি। সেইসাথে নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করার দাবী জানাচ্ছি।

হামলায় আহতরা হলেন, বিএনপি নেতা তোফাজ্জল হোসেন, হৃদয়, জজ মিয়া, নয়ন মিয়া, মাশিকুর রহমান, সরকারী সফর আলী ভূঁইয়া ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রদলের সভাপতি রানাসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী।


এরআগে, একইদিন সকালে বিএনপির প্রয়াত নেতা বদরুজ্জামান খান খসরু ও ইকবাল হোসেনের কবর জিয়ারতের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনের বিএনপি মনোনীত ঐক্যফ্রন্টের সংসদ সদস্য প্রার্থী কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ।

এসময় তিনি আড়াইহাজার থানা বিএনপির কার্যালয় নবরূপে উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের আওয়ামীলীগের বর্তমান সাংসদ ও মহাজোটের প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাবু কে হুঁশিয়ার করে বলেছিলেন, ‘আপনার নেতাকর্মী ও প্রশাসন দিয়ে হুমকি ধামকি দেওয়া বন্ধ করুন। বিএনপি একটি সুশৃঙ্খল দল এবং নেতাকর্মীরা ভদ্রলোক তাই তাদেরকে সুশৃঙ্খল ভাবে থাকতে দেন। বিএনপির নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে গেলে কিন্তু পালানোর পথ খুঁজে পাবেন না। ’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here