নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ এড. আবুল কালাম বলেছেন, ‘দেশের বিচার ব্যবস্থা থেকে জনগন আস্থা হারিয়ে ফেলেছে। যার ফলে দেশবাসী এখন চরম অস্থিরতার মধ্য দিয়ে দিন অতিবাহিত করছে। এ অবস্থা থেকে দেশকে রক্ষা করতে হলে সুষ্ঠ নিবার্চনের কোন বিকল্প নাই।’
বিএনপির চেয়ারপাসর্ন বেগম খালেদা জিয়ার গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে মহানগর বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে একথা বলেন তিনি।

বুধবার (১১ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে এই প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপুর সঞ্চালনায় এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কালাম, সহ-সভাপতি এড. জাকির হোসেন, সহ-সভাপতি হাজী নুরু উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন, মনিরুল আলম সজল, কোষাধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান মনির, প্তর সম্পাদক হান্নান সরকার, মহানগর শ্রমিক দলের আহবায়ক আসলাম, সদস্য সচিব আলী আজগর, যগ্ম-আহবায়ক মনির মল্লিক।

এড. আবুল কালাম আরও বলেন, ‘আমাদের সবচেয়ে বড় অপরাধ জনগনের অধিকার আদায়ের জন্য রাজপথে থাকি। যারা বিএনপির রাজনীতি করে সরকার তাদের বিভিন্ন ভাবে লাঞ্চিত করছে। শুধু তাই নয় দলের নেতা কর্মীদের কোনঠাসা করার জন্য এখন বিএনপির চেয়ারপাসর্ন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, ‘সর্বাঙ্গে ব্যথা দেহে ঔষধ দিবা কোথা, এই সরকারের কমর্কান্ডই তাদের পতনের রাস্তা পরিষ্কার হয়ে গেছে। ক্ষমতা হারানোর চিন্তায় এখন তাদের মাথা নষ্ট হয়ে গেছে। সারা বিশ্ব যাকে মাদার অব ডেমোক্রেসি হিসেবে জানেন। সেখান তার মত একজন নেত্রীকে কারাগারে পাঠানোর জন্য মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে। ১/১১ এর সময় বিএনপির চেয়ারপাসর্ন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে যে কয়টি মামলা হয়েছে, বতর্মান প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধেও সে কয়টি মামলা হয়েছে। অথচ প্রধানমন্ত্রী মামলা থেকে খালাস আর বিএনপির নেত্রীকে ঘন্টার পর ঘন্টা আদালতে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। এই হচ্ছে বতর্মান দেশের আইনী ব্যবস্থা। তাই আমি নেতা কর্মীদের আহবান করবো প্রতিবাদ নয় প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপি নেতা তাহের আলী, আব্দুর রহমান, অহিদুল ইসলাম ছক্কু, জামাল সরদার, নজরুল ইসলাম, গোলাম মোস্তফা খোকা, মাসুদ চৌধুরী, দেলোয়ার হোসেন দেলু, ফরহাদ হোসেন, সোলেমান, মনির হোসেন, মহানগর স্বেচ্ছা সেবক দল নেতা মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু, আবু আল বেলাল খান, মোঃ রোমান, দুলাল হোসেন, আব্দুর রশিদ হাওলাদার, মহানগর শ্রমিক দল নেতা ফজলুর রহমান, লিটন মিয়া, শহিদ মিয়া, আজিম সরদার, কামাল হোসেন, ফারুক হোসেন, সেলিম, আকরাম, মহানগর মহিলা দল নেত্রী এড. মাহমুদা বেগম, মহানগর ছাত্র দলের যুগ্ম-আহবায়ক আবুল কাউছার আশা, দপর্ন প্রধান, আব্দুল হাসিব, মোক্তাদির হৃদয়, শফিক চৌধুরী প্রমূখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here