নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে দলে যেখানে ঐক্য সৃষ্টি হওয়ার কথা, সেখানে সদ্য অনুষ্ঠিত ব্যালট বিহীন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপিতে সৃষ্টি হয়েছে নতুন করে কোন্দল।
অর্থাৎ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ পদে নির্বাচনে বিএনপি দলীয় প্রার্থী কাউন্সিলর আফসানা আফরোজ বিভার কাছে মহানগর যুবদলের আহবায়ক মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের পরাজয়ের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিএনপির অনেক নেতাকর্মীরা।

এতদিন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এড. তৈমূর আলম খন্দকার বলয়ে থাকলেও মহানগর বিএনপি নেতা মজিদ খন্দকারের ভাই হাসান আহাম্মেদ নিজের স্ত্রী বিভাকে প্যানেল মেয়র নির্বাচিত করার শর্তে ঘটি পাল্টে সাবেক এমপি মহানগর বিএনপির সভাপতি এড. আবুল কালামের ঘরে ভীড়ায় তীব্র সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

কারন, প্যানেল মেয়র-১ পদে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ ও প্যানেল মেয়র-৩ পদে আফসানা আফরোজ বিভা যদি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতো তাহলে বিএনপির কাউন্সিলরদের ভোটেই তারা প্যানেল মেয়র নির্বাচিত হতে পারতেন। কিন্তু হাসান আহাম্মেদ তা না করে কালামের সহযোগিতায় আওয়ামীলীগের নেতা হাজী ওবায়েদুল্লাহর সাথে আঁতাত করে অর্থেও বিনিময়ে কাউন্সিলরদের আয়ত্বে এনে আফসানা আফরোজ বিভাকে প্যানেল মেয়র-১ নির্বাচিত করান। আর মাত্র ৫ ভোট পেয়ে পরাজিত মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ।

তাই দলের চেয়ে টাকার কাছে নেতাদের নিজেদের বিকিয়ে দেয়াকে কোন ভাবেই মেনে নিতে পারছেন না তৃণমুল নেতৃবৃন্দ। আর এই প্যানেল মেয়র নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তৈমূর ও মজিদ বলয়ের মধ্যে নতুন করে কোন্দলের সৃষ্টি হলো বলে মন্তব্য করেন তারা।

পরাজয়ের পর খোরশেদ তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে সাবেক এমপি গিয়াস উদ্দিন, এড. আবুল কালাম, বন্দর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুলের ছবি সম্বলিত একটি সংবাদ পোস্ট করে মন্তব্য করেন, ‘তারা আসল বিএনপি’।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব বলেন, ‘হায়রে বি এন পি — ভোট আছে ১৪ টি এক প্রার্থী পাইছে ৫ টি আরেকজন পাইছে ৮ টি। যার মধ্যে অন্য দলের ভোটও আছে। কবে তোরা মানুষ হবি? ঈমান বিক্রি আর কত করবি? নিরপেক্ষ লেবাসধারী ব্যক্তির পক্ষপাত মূলক আচরন, উন্নয়নের নামে লোভনীয় অফার অগ্রাহ্য করার ক্ষমতা কি আমাদের আছে নিশ্চই নেই। তবে প্রকৃতি যে বড় নির্মম যথা সময়ে তার হিসেব সুদে আসলে ফেরত নিয়ে নিবে। যা আমরা সহজে ভুলে যাই, যা মোটেই কাম্য নয় কারন এর পরিনাম ভয়াবহ ইতিহাস তাই সাক্ষী দেয়।’

প্রসঙ্গত, গত ২৭ সেপ্টেম্বর নগর ভবনে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ নির্বাচিত হন সংরক্ষিত আসনের ১৬, ১৮ ও ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফসানা আফরোজ বিভা। যিনি পান ১৬ ভোট। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামীলীগ নেতা ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু পেয়েছেন ১৩ ভোট। আর যার প্যানেল মেয়র নির্বাচিত হওয়ার আশংকা ছিল, সেই ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ পেয়েছেন মাত্র ৫ ভোট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here