নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেছেন, ‘গাছই মানুষের জীবন। কারন আমাদের অক্সিজেন নিতে একমাত্র সহায়তা করে সবুজ গাছপালা। তাই প্রতিটি মানুষের বাড়িতে বেশী বেশী করে গাছ লাগানো অনেক বেশী প্রয়োজন।’
‘বৃক্ষ রোপন করে যে সম্পাদ শালী হয় সে’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ফল ও বৃক্ষ মেলা-২০১৭ উদ্বোধন করা হয়।


সোমবার (১৭ জুলাই) নগরীর চাষাড়ার টাউন হল প্রাঙ্গনে বিকাল ৫টায় ফল ও বৃক্ষ মেলার শুভ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

হেলালুদ্দীন আরো বলেন, ‘আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মদেরকে বেশী করে গাছ লাগাতে উৎসাহ যোগাতে হবে। সারা দেশে আজ বনগুলো উজার হতে চলেছে। মনে রাখবেন বাংলাদেশ ফল উৎপাদনে বিশ্বে চতুর্থ স্থানে রয়েছে। পাশাপাশি সবজি উৎপাদনে আমরা চতুর্থ স্থানে এবং মাছ উৎপাদনে আমরা একই অবস্থানে রয়েছি। সুন্দর আর সুস্থ্য দেহ গড়ে তুলতে হলে বেশী করে ফলমূল আমাদেরকে খেতে হবে।;


সভাপতির বক্তেব্যে জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া বলেন, ‘আমাদেরকে বৃক্ষের প্রতি আরও বেশী গুরুত্ব আরোপ করতে হবে। নারায়ণগঞ্জে যেন বৃক্ষ রোপন বেশীকরে বৃদ্ধি পায় সেদিকে আমাদেরকে খেয়াল রাখতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘ সর্ব প্রথম আমাদের পরিচয় আমরা মানুষ। আমরা এই জেলার সকল কর্মকর্তাগন একই পরিবারের সদস্য হিসেবে নিজেদেরকে মনে করি। পরিবেশের কথা চিন্তা করে আমরা আমাদের পরবর্তী প্রজন্মদের জন্য আরও বেশী গাছ লাগাতে তাগিদ দিতে হবে। আমি আশাকরি এই মেলার মাধ্যমে গাছ লাগানোর ভালো একটি উৎসাহ পাবেন এই জেলার বাসিন্দারা। আমরা ১৫দিন ব্যাপি এই মেলার আয়োজন করেছি। রাত ১১ পর্যন্ত এই মেলা চলবে।’


অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মো: শরফুদ্দীন, কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর ঢাকা অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক ড. মো: আব্দুল মঈন, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ নিশাদ, সামাজিক বণ বিভাগ ঢাকা সহ জেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ।

উল্লেখ্য, ১৫দিন ব্যাপি ফল ও বৃক্ষ মেলায় মোঠ ৩৫টি ষ্টল খোলা হয়েছে। ৬টি উপজেলা থেকে এই স্টলগুলো খোলা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here