প্রেস বিজ্ঞপ্তি: আগামী ২০ ফেব্রুয়ারী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর, ভাষা সৈনিক ও স্বাধীনতা পদকে(মরোণত্তর) ভুষিত প্রয়াত জননেতা একেএম শামসুজ্জোহার ৩১ তম মৃত্যুবার্ষিকী। দিনটি উপলক্ষ্যে মরহুমের পরিবার ও নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন দিনভর কর্মসূচী পালন করবে। এদিকে মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে একই সাথে প্রয়াত একেএম সামসুজ্জোহার সহধর্মীনি ও ভাষা সৈনিক রতœগর্ভা মরহুমা নাগিনা জোহার ২য় মৃত্যু বার্ষিকিও পালন করা হবে।

জানা গেছে, দলীয়ভাবে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে পবিত্র কোরআনখানি, শোক র‌্যালী, কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও জিয়ারত, দোয়া মিলাদ ও আলোচনা সভা। এছাড়াও ২০ ফেব্রুয়ারী বেলা ১১টায় মরহুমের মেঝ ছেলে ও বিকেএমই সভাপতি একেএম সেলিম ওসমান এমপি’র নিজ অর্থায়নে নির্মিত বন্দর উপজেলার মুছাপুরস্থ একেএম সামসুজ্জোহা এম বি ইউনিয়ন হাই স্কুলে মিলাদ ও দোয়ার মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। বিকালে মরহুমের চাষাড়স্থ নিজ বাসভবন হীরা মহল সংলগ্ন জামে মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে ছোট ছেলে আওয়ামীলীগ নেতা একেএম শামীম ওসমান এমপি সকলকে রুহের মাগফেরাত কামনায় মিলাদ ও দোয়ায় অংশ গ্রহন করার আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য ১৯৮৭ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী একেএম শামসুজ্জোহা মৃত্যুবরণ করেন। তিনি ছিলেন একাধারে ভাষা সৈনিক, আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, গণ পরিষদের সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সংসদ সদস্য। মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের প্রাক্কালে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেসা, বঙ্গবন্ধু কন্যা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ পাক সেনাদের হাতে আটক বঙ্গবন্ধু পরিবারকে মুক্ত করতে গিয়ে পাক সেনাদের গুলিতে আহত হয়েছিলেন একেএম সামসুজ্জোহা। মহান মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় তিনি ২০১২ সালে স্বাধীনতা পদক (মরণোত্তর) লাভ করেন। অপরদিকে ভাষা সৈনিক রতœগর্ভা নাগিনা জোহা ২০১৬সালের ৭মার্চ মৃত্যু বরণ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here