নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ এড. আবুল কালাম বলেছেন, ‘শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান দেশকে স্বনির্ভর করার জন্যই যুবদল প্রতিষ্ঠা করেছিলো। নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের অবস্থান নিয়ে মূল্যায়নের সময় এসেছে। আপনারা প্রতিটি ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের খসড়া কমিটি গুলো জমা দিন, তবে অবশ্যই সেখানে প্রকৃত নেতাদের অবস্থান থাকতে হবে।’

শুক্রবার (২৭ অক্টোবর) যুবদলের ৩৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। কালীরবাজারস্থ মহানগর বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে মহানগর যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক সরকার আলম এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল।

এছাড়াও আরও বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম মজনু, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন, কোষাধক্ষ মনিরুজ্জামান মনির, বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন আনু, মহানগর ছাত্র দলের যুগ্ম-আহবায়ক আবুল কাউছার আশা, যুবদল নেতা নাজমুল হক রানা, মহিলা দলের নেত্রী দিলারা মাসুদ ময়না।

এড. আবুল কালাম আরও বলেন, ‘দেশের জাতীয় অভক্ষয় থেকে মুক্তি পেতে হলে এখন সংগ্রাম, আন্দোলন, নির্বাচন এর কোন বিকল্প নেই। প্রশাসনের কারনে আজ আমরা রাজপথে থেকে কিছু করতে পারছি না, কারন আমরা রাজপথে আমাদের নিজেদের অবস্থান জাহির করতে পারছি না। এরজন্য তৃনমূল নেতাদের সাথে আন্তরিকতা, সততার কোন বিকল্প নেই। আমাদেরকে আরও শক্তি শালী হয়ে উঠতে হবে। বিএনপির প্রতিটি সংগঠনের প্রাতিষ্ঠানিক রূপ আছে, কিন্তু যুবদল ও স্বেচ্ছা সেবক দলের কোন রূপ নেই। আসুন শহীদ রাষ্টপতি জিয়াউর রহমানের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার জন্য সকলকে আরও শক্তিশালী অবস্থানে আসতে হবে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, মহানগর বিএনপির অনুমোদন দিয়েছেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া নিজ হাতে। সেই সাথে সহযোগী সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দদের বলে দিয়েছেন কোন কমিটি জেলা ও মহানগর সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের অনুমতি ছাড়া যেন না দেয়া হয়। আমরাও সহযোগী সংগঠনের কমিটির বিষয় কোন সজন প্রীতি করবো না। যারা দলের কমান্ড মেনে চলছে তাদের হাতেই কমিটি দেয়া হবে। যারা এই ধারাবাহিকতা না মেনে কমিটি আনার চেষ্টা করবেন। তারা দেশনেত্রীর নির্দেশকে উপক্ষো করলেন। আমি আপনাদের আহবান করবো আপনারা কাজ করে যান অবশ্যই আপনাদের মূল্যায়ন করা হবে।

মহানগর যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক মনোয়ার হোসেন শোখন এর সঞ্চালনায় এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর যুবদল নেতা নাজমুল হক রানা, মিলন মিয়া, গরিব উল্লাহ কালা চানঁ, আলী ইমরান শামীম, রোমান হোসেন, নাছির, শাহীন, মাসুদ, পাবেল, সহিদ, কালাম, আরিফ, মহানগর স্বেচ্ছা সেবক দলের নেতা মোশঅরফ হোসেন, দুলাল হোসেন, আব্দুর রশিদ হাওলাদার, মাসুদ, মহানগর শ্রমিক দল নেতা নুর মোহাম্মদ প্রমূখ।

আলোচনা সভা শেষে কেক কেটে যুবদলের ৩৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here