নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বিভিন্ন স্থানে একের পর এক দেয়ালের আস্তর খসে পড়ে এখন মৃত্যুস্থলে পরিনত হয়েছে শহরের ডিআইটিতে অবস্থিত প্রাচীনতম জনতা সুপার মার্কেটটি।
সম্প্রতি মার্কেটের পিছনের অংশে দ্বিতল ছাদের একাংশ ধ্বসে রাস্তায় পড়লেও অদ্যবধি টনক নড়েনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বা প্রশাসনের। যেই কারনে প্রতিদিন মৃত্যু ঝুঁকি নিয়েই এই মার্কেটে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করছেন দোকানীরা। আর এছাড়া কোন প্রয়োজনে মার্কেটে প্রবেশ করলেও বের হওয়ার আগ মূহুর্ত পর্যন্ত একপ্রকার আতংকে থাকেন বলে জানান, উক্ত মার্কেটে প্রতিনিয়ত যাতায়াতরত ক্রেতারা।

জানাযায়, জনতা সুপার মার্কেটটি অতি প্রাচীনতম একটি মার্কেট। তিন তলা বিশিষ্ট এই মার্কেটের নীচ তলায় ষ্টীলের তৈরী আসবাবপত্র, ইলেকট্রনিক্স, টিভি মেরামতের দোকান, দ্বিতীয় তলায় আরো বিভিন্ন ছোট ছোট কারখানা এবং তৃতীয় তলায় একটি প্রিন্টিং কারখানা রয়েছে।

বর্তমানে এই মার্কেটটি খুবই জরাজীর্ণ এবং ঝুকিপূর্ণ আবস্থায় রয়েছে। নীচ তলায় দাঁড়ালে উপরে ছাদের অংশের দেয়ালের আস্তরগুলো খসে পড়ছে। যেন মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে জনতা সুপার মার্কেটটি।

শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সরেজমিন ঘুরে দেখাগেছে এমনই চিত্র। মার্কেটের পেছনে ৩ ইঞ্চি ইটের দেয়াল গত কয়েকদিন পূর্বে ভেঙ্গে রাস্তায় পড়ে যায়। বড় ধরনের একটি দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় সাধারন পথচারীরা। জনতা সুপার মার্কেটের নীচ তলার সিঁড়ির পাশের পিলার গুলো ধসে ধসে ভেতরের রড বের হয়ে গেছে। তাছাড়া ওই মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় উঠলে মনে হচ্ছে পুরো মার্কেটটি যেন কাপছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এই মার্কেটের ব্যবসায়ীরা জানান, ‘তারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করছেন। মার্কেট মালিক এগুলোর বিষয়ে কোন প্রকার চিন্তা ভাবনা করেন না। তার দরকার ভাড়া। প্রতি মাসে ভাড়া পেলেই তার চলে! এই মার্কেটের তৃতীয় তলায় রয়েছে একটি প্রিন্টিং ফ্যাক্টরী। সেখানে নারী ও পুরুষ মিলিয়ে অনেক শ্রমিক কাজ করেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here