নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ মেট্রোরেল বাস্তবায়ন কমিটির নেতারা জানিয়েছেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ মেট্রোরেল কয়েকটি পত্রিকার কপি’র কাছে আটকে আছে। বাকী আনুষ্ঠানিকতা তারা সারতে পারবেন। এমনকি এই প্রকল্পে বিনিয়োগকারী দেশী বিদেশী কোম্পানীর সাথেও তাদের আলাপ চুড়ান্ত হয়েছে।
তাদের মতে, মেট্রোরেল প্রথমে নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত ছিলো, কিন্তু সম্ভাবনা যাচাইয়ে বাদ পরেছে। এখন পুনরায় সম্ভাবনা যাচাইয়ে অন্তর্ভূক্তির জন্য এর স্বপক্ষে সংবাদ সম্মেলনের খবর সম্বলিত পত্রিকার কপি পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়ে জমা দিতে হবে। তাহলেই পূরণ হবে নারায়ণগঞ্জবাসীর স্বপ্ন।

শুক্রবার (১১ আগষ্ট) সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ মেট্রোরেল বাস্তবায়ন কমিটির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, মেট্রোরেল নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত চাই এবং একই দিনে উদ্বোধন করা হোক। এটা নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রাণের দাবী। এই দাবীর স্বপক্ষে দলমত নির্বিশেষে সকল নারায়ণগঞ্জবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান করছি। আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জামায়াত শিবির কিংবা রাজাকারের পুত্র, এই দলে কোন ভেদাভেদ থাকবে না। সকলের জন্য দ্বার উন্মুক্ত। আমরা প্রধাণমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাবো, মেট্রোরেলের মাধ্যমে সৃষ্ট উন্নয়নে নারায়ণগঞ্জবাসীকেও সম্পৃক্ত করুন।

তারা আরো বলেন, এই দাবী বাস্তবায়নে পরিকল্পনা মন্ত্রনালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রস্তাবিত মেট্রোরেলের জন্য যে সাতটি লাইন করা হয়েছে, সেখানে চার নাম্বারে আছে কমলাপুর-নারায়ণগঞ্জ। কিন্তু বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের সময়ে বাদ পরে যায় এটি। পুনরায় অন্তর্ভূক্ত করতে হলে এই দাবীর স্বপক্ষে জনমত গঠন করে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করে সেই পত্রিকার কপি মন্ত্রনালয়ের টেবিলে জমা দিতে হবে। তারপর বাকী কাজ তারা সারতে পারবেন। সরকারী বরাদ্দ না থাকলেও বেসরকারী বিনিয়োগে এটা করা যাবে, এবং এর জন্য প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতাও তারা সেরে ফেলেছেন। এখন শুধু এই সংবাদ সম্মেলনের ছবি ও নিউজ সম্বলিত পত্রিকার কপি ও ভিডিও ফুটেজ জমা দিতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ মেট্রোরেল বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক কামাল মৃধা, সিকিউরিটি এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সাবেক কর্মকর্তা আনোয়ারুল কবীর প্রমূখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here