নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খান মাসুদের বিরুদ্ধে বন্দর থানা ছাত্রলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক শেখ মাইনুদ্দিন মাইনুসহ ছাত্রলীগ নেতা দোলন, অনিক ও রায়হানকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে মানববন্ধন করেছে বন্দরবাসী।

মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর) সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বন্দর থানা ছাত্রলীগের নেতারা বলেন, ‘খান মাসুদ অশিক্ষিত মূর্খ নামধারী ছাত্রলীগ নেতা। তার বিরুদ্ধে হত্যা, গুম, নারী নির্যাতন, পুলিশের অস্ত্র লুট, মাদক ব্যবসাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। খান মাসুদ বন্দর থানা ছাত্রলীগ নেতা মাইনু, অনিক, রায়হান ও দোলনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়েছে। কিন্তু বন্দর থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছে না। এই মানববন্ধন থেকে অবিলম্বে ছাত্রলীগের নামধারী সন্ত্রাসী খান মাসুদের গ্রেফতারের দাবী জানাচ্ছি। ’

মানববন্ধনে ছাত্রলীগ নেতারা আরো বলেন, ‘আমরা নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নের রূপকার একেএম শামীম ওসমানের আদর্শে ও নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ সাফায়াত আলম সানীর নেতৃত্বে ছাত্রলীগের রাজনীতি করি, এটা কি আমাদের অপরাধ! খান মাসুদের মতো নেতাদের কারনে ছাত্রলীগের বদনাম হচ্ছে। আমরা সুস্থ্যধারার রাজনীতি চর্চা করতে চাই। কিন্তু আমাদের উপর যদি এভাবে একের পর এক হামলা চালানো হয়, তাহলে আমরা আর ঘরে বসে থাকবো না। প্রয়োজনে আমরা হাতে অস্ত্র তুলে নেবো এবং নারায়ণগঞ্জের রাজপথ অচল করে দেবো। তাই আমরা নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান, নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মইনুল হক, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ সাফায়াত আলম সানী, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সুজনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। অবিলম্বে সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী খান মাসুদকে গ্রেফতার করা হোক এবং কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।’

বন্দর ইউনিয়ন ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা মো: আমানউল্লাহ, বন্দর থানা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামসুল হক, বন্দর ইউনিয়ন ১ নং ওয়ার্ড সদস্য মো: ইউসুফ, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সৈয়দ লিটন, বন্দর শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের সভাপতি মোরসালিন, ফতুল্লার সভাপতি মামুনুর রশিদ, ছাত্রলীগ নেতা দোলন হোসেন, অনিক হাসান, শ্যামল, এলাকাবাসীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কাশেম, মোশাররফ, মর্জিনা বেগম, রহিমা খাতুন, সালেহ বেগম প্রমূখ ।

এ বিষয়ে জানতে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ সাফায়েত আলম সানীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে বলেন, বিষয়টি আমি জানি না। আমি আগে ভালোভাবে জেনে এ বিষয়ে বিবৃতি দিতে পারবো। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের অস্ত্র হাতে তুলে নিয়ে নারায়ণগঞ্জের রাজপথ অচল করে দেয়া বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে সানী বলেন, এটা অবশ্যই গঠনমূলক বক্তব্য নয়, এ ধরনের বক্তব্য দেয়া উচিত হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here