নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: সব স্ত্রীলোক ভগবতীর এক- একটি রূপ। আর শুদ্ধাত্মা কুমারীতে ভগবতীর বেশী প্রকাশ ঘটে বলেই প্রতিবছর শারদীয় দূর্গোৎসবের মহাষ্টমী তিথিতে নারায়ণগঞ্জ রামকৃষ্ণ মিশনে কুমারী রূপে এক জীবন্ত শিশু কণ্যার পূজা করা হয়ে থাকে।
আর এবছর নারায়ণগঞ্জ রামকৃষ্ণ মিশনে কুমারী রূপে ভক্তের পূজো নিতে আসছেন শহরের চাষাড়া এলাকার বাসিন্দা অভিজিৎ চক্রবর্তী ও উমা চক্রবর্তীর কণ্যা অনন্তা চক্রবর্তী গুণগুণ। তার বয়স বর্তমানে ৫ বছর ৬ মাস। সে শহরের চাষাড়াস্থ বেইলী স্কুলের নার্সারী শ্রেণীর ছাত্রী।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী একনাথানন্দ নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, ‘আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় দূর্গোৎসবের মহাষ্টমী তিথিতে রামকৃষ্ণ মিশনে শুদ্ধাত্মা শিশু কণ্যা গুণগুণকে কুমারী মাতৃরূপে পূজা করা হবে।’

‘সব স্ত্রীলোক ভগবতীর এক- একটি রূপ। আর শুদ্ধাত্মা কুমারীতে ভগবতীর বেশী প্রকাশ। তাই প্রতিবছর মহাষ্টমী পূজোর দিন সকালে মিশনে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হয় বলে জানান, স্বামী একনাথানন্দ।’

তবে শুধু নারায়ণগঞ্জ রামকৃষ্ণ মিশনেই নয়, শহরের গলাচিপাস্থ রামকানাই জিউর আখড়া, নিতাইগঞ্জে পূবালী গ্রুপের দূর্গো মন্ডপে, কাশীপুর বাড়ৈভোগ শ্রীশ্রী রাধা গোবিন্দ জিউর মন্দিরসহ আরো একাধিক পূজা মন্ডপে দূর্গোৎসবের মহাষ্টমীর দিন কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান, পূজা উদযাপন কমিটির নেতৃবন্দরা।

জানাগেছে, শাস্ত্রকাররা নারীকে সন্মান ও শ্রদ্ধা করতে কুমারী পূজা করতে বলেছেন। সনাতন ধর্মে নারীকে সন্মানের শ্রেষ্ঠ আসনে বসানো হয়েছে। “নিজেদের পশুত্বকে সংযত রেখে নারীকে সম্মান জানাতে হবে”- এটাই কুমারী পূজার মূল লক্ষ্য।

প্রচলিত শাস্ত্র অনুসারে, বিভিন্ন মিশন ও মন্দিরগুলোতে সর্ব মঙ্গলের জন্য ব্রাহ্মণ কন্যাকেই দেবী জ্ঞানে পূজা করা হয়। সকল নারীর মধ্যই বিরাজিত রয়েছে দেবীশক্তি। তবে কুমারী রূপেই মা দূর্গা বিশেষভাবে প্রকটিত হয়েছিলেন। তাই, কুমারী রূপে নারীকে দেবীজ্ঞানে সম্মান জানানোর একটি বাস্তব উদাহরন হচ্ছে “কুমারী পূজা”। ঈশ্বরের অনন্ত- ভাব। সেজন্য পূজারীরা অনন্ত-ভাবের এক ভাব কুমারী মাতৃরূপে ঈশ্বরকে আরাধনা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here