নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বাংলাদেশ সরকারের সহযোগিতা চেয়ে, রোহিঙ্গা মুসলমানদের বাঁচাতে একদিনের জন্য মিয়ানমারে প্রবেশের অগ্রাধিকার চেয়েছেন জাগ্রত তওহিদী জনতা বক্তাবলী পরগণার নেতৃবৃন্দ।
তারা বলেছেন, বিশ্বের মানুষ যুদ্ধ করে নিজেদের রক্ষার জন্য কিন্তু মুসলমানরা যুদ্ধ করে অন্যকে রক্ষা এবং শহীদের মর্যাদা পাবার জন্য। মায়ানমার রোহিঙ্গা মুসলিমদের রক্ষার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নয় তওহিদী জনতাই যথেষ্ট।

শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বাদ জুম্মা তওহিদী জনতা বক্তাবলী পরগণার ব্যানারে ফতুল্লার বক্তাবলী পরগণার বিভিন্ন এলাকা থেকে রোহিঙ্গা মুসলমাদের নির্যাতনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল এবং প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে উপস্থিত বক্তারা ঈমানী দ্বায়িত্ব থেকে উপরোক্ত বক্তব্য প্রদান করেন।

বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত বক্তারা আরও বলেন, আমাদের শরীরে হযরত ওমর (রা:) হযরত আলী (রা:) রক্ত প্রবাহমান। আমরা মুসলমানদের রক্ষা করতে যেকোন জিহাদে অংশগ্রহণ করতে প্রস্তুত। হেফাজতের আমির আল্লামা শফি যদি আমাদের হুকুম দেন তাহলে মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট অং সাং সুচিকে নিশ্চিহ্ন করে দেবার ক্ষমতা আমাদের রয়েছে।

তারা সকলকে বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গা মুসলমানদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবার আহবান জানান।

আয়োজিত সংগঠনের আহবায়ক মাওলানা আতাউল হক সরকার’র সভাপতিত্বে এ সময় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব শাহীন সরকার, মাও: বোরহান উদ্দিন, মাও রফিকুল ইসলাম, মুফতি ইমরান হোসেন, শাহাদাৎ সরকার, মুফতি সাইদুর রহমান, মাও: সেকেন্দার আলী, মাও: ওসমান গনি, মাও: আব্দুল হক, মুফতি মাও আবুল কালাম আজাদ, আহম্মদ উল্লাহ, মাও আব্দুর রহমান, আব্দুল হামিদ সহ আলীরটেক, কুড়েরপাড়, গোপচর, ডিক্রিচর, মোক্তারকান্দি সহ বিভিন্ন এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here