নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: মিয়ানমারের রাখাইন অঞ্চলে রোহিঙ্গাদের নির্বিচারে হত্যার প্রতিবাদে বন্দর নবীগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল করেছে মুসল্লিরা।
শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) জুম্মার নামাজের পর নবীগঞ্জ খাজা ইসমাইল হোসাইন (মাজার) মসজিদ থেকে “মিয়ানমার গণহত্যা প্রতিবাদী” মুসলিম জনতা শান্তির শহর নবীগঞ্জবাসী” ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিলটি বের করা হয়। মিছিলটি নবীগঞ্জের বেশ কয়েকটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে নবীগঞ্জ বাস স্ট্যান্ড এলাকায় গিয়ে শেষ হয়। ওই সময় মুসল্লিরা বন্দর- মদনপুর সড়ক অবরোধ করে সংক্ষিপ্ত সমাবেশও করেন। পরে রোহিঙ্গাদের জন্য বিশেষ দোয়ার মধ্যদিয়ে শেষ তাদের বিক্ষোভ কর্মসূচী।

সমাবেশে বিভিন্ন মসজিদের ইমাম খতিব ও হাফেজগণ বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যে তারা বলেন, জাতিসংঘ যতবার বাংলাদেশকে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার কথা বলেছেন, ততবার যদি মিয়ানমার সরকারের চাপ প্রয়োগ করতো, তাহলে আজ রোহিঙ্গারা এত নির্যাতন ও গণহত্যার শিকার হতে হত না। আমরা জাতিসংঘের প্রতি আহবান জানাবো, মিয়ানমারের রাখাইন অঞ্চলে রোহিঙ্গাদের উপর নিপীড়ন বন্ধে দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য। পাশাপাশি বাংলাদেশ সরকারকে অনুরোধ করবো, কূটনৈতিক তৎপরতা বৃদ্ধি করে এ সমস্যা সমাধানের জন্য আর্ন্তজাতিকভাবে মিয়ানমার সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করা।

বিক্ষোভ কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন, কুতুবিয়া দরবার শরিফ এর পীর সাহেব আলহাজ্ব জামাল উদ্দিন মোমিন, খাজা ইসমাইল হোসাইন মাজার মসজিদের খতিব আলহাজ্ব মাও. বদরুল আলম আল কাদেরী, কদম রসূল দরবার শরিফের খতিব আলহাজ্ব মাও. শরীফুল্লাহ্ শাহীন, রওশনবাগ মসজিদের খতিব মাওলানা সালাউদ্দিন, টি-হোসেন জামে মসজিদের খতিব হাফিজ শহীদুল্লাহ্, উত্তরপাড়া জামে মসজিদের খতিব হাফেজ আব্দুল কাসেম, চানবক্স জামে মসজিদের খতিব হাফেজ জহিরুল ইসলাম, মিসকিন মেহেদী হাসান তপু, মো: জাকির হোসেন, মো: পনির হোসেন, আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, হাজী আব্দুল সালাম, আবুল কালাম আজাদ প্রমূখ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here