নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: অশ্রু নয়ণে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমানকে ‘অভিশাপ’ দিলেন মহানগর যুব মহিলালীগের প্রথম কমিটির আহবায়ক বিতর্কিত নুরুন্নাহার সন্ধ্যা।
সোমবার (১৪ আগষ্ট) বিকেলে শহরের ২নং রেলগেটস্থ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মহানগর আওয়ামীলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্যকালে কেঁদে কেঁদে এই অভিশাপ দেন।

সন্ধ্যা প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘যাদের জন্য সারাজীবন রাজপথে ছিলাম, আজ তারাই আমাকে কলঙ্কিত করলো। কি দোষ ছিল আমার শামীম ভাই, যে আপনে আমাকে কলঙ্কিত করলেন? কামীম ভাই আপনে কিভাবে পারলেন?’

ভারাক্রান্ত হৃদয়ে সন্ধ্যা বলেন, ‘আমি আজ রাস্তায় বের হতে পারি না। ইচ্ছে করে মইরা যাই।’

এরপর শামীম ওসমানকে ‘অভিশাপ’ দিয়ে সন্ধ্যা ক্ষুব্ধ কন্ঠে বলেন, ‘আমাদের দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী একজন নারী, জাতীয় সংসদের স্পিকার নারী আর আমিও একজন নারী। কিন্তু আপনি আমাকে যেভাবে কলঙ্কিত করেছেন এজন্য আল্লাহ আপনাকে ক্ষমা করবেন না।’

মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক এড. খোকন সাহার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি এড. রোকন উদ্দিন, শেখ হায়দার আলী পুতুল, নুরুল ইসলাম চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক আহসান হাবীব, জি এম আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, জি এম আরাফাত, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা: আতিকুজ্জামান সোহেল, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আছিয়া বেগম, কার্যকরী সদস্য সাজ্জাদুর রহমান সুমন, মহানগর ১৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কবির হোসাইন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ২৮ মে মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেন ও সাধারন সম্পাদক এড. খোকন সাহার সুপারিশে ৩০ মে নুরুন্নাহার সন্ধ্যাকে আহবায়ক ও সালমা আক্তার, শারমীন আক্তার ডলি, মায়ানূর মায়া, চায়না আক্তার, রুম্পা আক্তারকে যুগ্ম আহবায়ক করে ৪৯ সদস্য বিশিষ্ট যুব মহিলালীগ নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটির অনুমোদন দেন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নাজমা আক্তার ও সাধারন সম্পাদক অপু উকিল।

এরপর নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমানের সুপারিশে কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নাজমা আক্তার ও সাধারন সম্পাদক অপু উকিল এড. স্ইুটি ইয়াসমিনকে আহবায়ক ও মুনিরা সুলতানাকে যুগ্ম আহবায়ক করে মহানগর যুব মহিলালীগের আরেকটি কমিটি অনুমোদন দেয়।

তারপর থেকেই শুরু হয় মতবিরোধ। শামীম ওসমানের বিরুদ্ধে বিষেদাগার করে অযাচিত বিবৃতি দিতে থাকনে সন্ধ্যা। এরপর সম্প্রতি সাংসদ শামীম ওসমান স্পষ্ট ভাষায় নেতাকর্মীদের জানিয়ে দেন র‌্যাবের ক্রসফায়ারে যুবদল ক্যাডার মমিনউল্লাহ ডেভিড নিহত হওয়ার সময় তার গাড়ীতে সেময় মদ্যপ অবস্থায় ছিল নুরুন্নাহার সন্ধ্যা। যেই কারনে সন্ধ্যা বিতর্কিত হওয়ায় তিনি ভাল মেয়েদের নিয়ে নতুন কমিটি গঠনের সুপারিশ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here