নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী সাংসদ একে এম শামীম ওসমানের পক্ষে নির্বাচনি মত বিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৫ ডিসেম্বর) ইউনয়নের ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে এসব মত বিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

কতুবপুর ইউনিয়ন ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আলাউদ্দিন হাওলাদারের সভাপতিত্ব অনুষ্ঠিত সভায় প্রধাণ অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম সাইফউল্লাহ বাদল। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম শওকত আলি।

উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আসাদুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক এমএ ইসহাস, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মঞ্জুর ইসলাম, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহদাত হোসেন সাজনু, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি সালাউদ্দীউন ভুইয়া, শান্তিধার ইউনিটি আওয়ামীলীগের সভাপতি রাজ্জাক বেপারি, থানা আওয়ামীলীগের তথ্য বিষয়ক সম্পাদক জসিম উদ্দিন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ইউনুস দেওয়ান, ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন, কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোজাফ্ফর হোসেন, জেলা পরিষদের সদস্য গোলাম মোস্তফা, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শফি। আর এ আয়োজন সার্বিকভাবে তত্ত্বাবধান করেছেন ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, কাশিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আতাউর রহমান আতাসহ যুবলীগ ছাত্রলীগ ও অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে এম সাইফুল্লাহ বাদল বলেন, আমারা যারা ফতুল্লাবাসি তারা গর্ব করতে পারি এ অঞ্চলের উন্নয়নের রূপকার শামীম ওসমানকে নিয়ে। শামীম ওসমান এমন একজন নেতা যে বুঝে কেবল উন্নয়ন। তাই আমি বলতে পারি কুতুবপুর ইউনিয়ন এর মানুষ শামীম ওসমান কে সর্বোচ্চ ভোটে জয়ী করবে। শামীম ওসমান এর পক্ষে সবার কাছে যাওয়া সম্ভব হবে না, তাই আমি মনে আমরা যারা আওয়ামীলীগ করি তারা প্রতিটি ঘরে ঘরে শামীম ওসমান এর উন্নয়নের কথা পৌছে দেবো।

তিনি আরো বলেন, শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসন ছাড়াও অন্য চারটি আসনেও তিনি দলের জন্য কাজ করবেন। ডিএনডিবাসীর জন্য একমাত্র শামীম ওসমানই কিছু করতে চেয়েছেন, অন্য কোন এমপি এটা নিয়ে কাজ করেনি। তাই ডিএনডিবাসীকে ঠিক করতে হবে তারা জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি চায় কিনা। কারন কষ্ট হলে ডিএনডিবাসীরই হবে। তাই ডিএনডির জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেতে হলে আগামী ৩০ ডিসেম্বর শামীম ওসমানকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে হবে।

এ সময় এলাকার নন্দলালপুর ও নয়ামাটিতে নৌকার দুটি নির্বাচনী ক্যাম্প উদ্বোধন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here