নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র নারায়ণগঞ্জ জেলার নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে একের পর এক তাদের আন্দোলন আর কর্মসূচীগুলো সুন্দর ও সফল ভাবেই চালিয়ে যাচ্ছে। নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি’র কতিপয় নেতাকর্মীদের নানা ধরনের বক্তব্য আর রাজনৈতিক কর্মকান্ডে দলের চলমান উজ্জল ভাবমূর্তি গুলো বিনষ্ট হয়ে যাচ্ছে। যা কিনা একটি সংগঠিত দলের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।
তেমনি একজন নেতা হচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির বহু বিতর্কিত সহ-সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার চেয়ারম্যান এড. আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস।

যিনি কিনা কখনো আওয়ামীলীগ সরকারের বন্দনা করেন, আবার বদনামও করেন। শুধু তাই নয়, খোদ সরকার দলীয় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমানকে নিজের নেতা হিসেবে আখ্যায়িত করে বেশী বিতর্কিত হয়ে যান আবুল কালাম আজাদ।

কিন্তু এবার সেই শামীম ওসমানের কর্মী আজাদ বিশ^াসই খোদ তার নেতা শামীম ওসমানের মাতৃতুল্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি করলেন চরম বিষেদাগার।

বিএনপি চেয়ারপারর্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে গত ৩ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তীব্র সমালোচনা করেন।

জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস বলেন, ‘আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপারর্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া প্রতি সপ্তাহে কোর্টে হাজিরা দিতে যায়। এই কোর্ট শেখ হাসিনার স্বৈরাচারী কোর্ট। ওই স্বৈরাচারী কোর্টে শেখ হাসিনার নির্দেশে আর আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের নির্দেশে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালত যে আদেশ দিয়েছেন আমরা তার বিরুদ্ধে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহাকে এই সরকার জোর করে তার পদ থেকে বাদ দিয়েছেন।’

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘১৯৭৮ সালে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানই প্রথম বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীকে আধুনিকায়ন করতে নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়েছিলেন। পাশাপাশি বিএনপি ক্ষমতায় থাকা কালীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এই পুলিশ বাহিনীদেরকে নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়েছিল।’ (তার বক্তব্যটির অডিও রেকর্ড সংরক্ষিত আছে)।

আর শেখ হাসিনার প্রতি শামীম ওসমানের কর্মী আজাদ বিশ^াসের এমন বিষেদাগারে এখন ক্ষোভের ঝড় বইছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে।

কারন, গত মাসে ডিএনডি বাাঁধের উন্নয়ণ ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাতে ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগ আয়োজিত জনসভায় এড. আবুল কালাম আজাদ বিশ^াস বলেছিলেন, শামীম ওসমান আমার নেতা। বর্তমান সরকার ডিএনডি বাঁধের উন্নয়ণ করতে যাওয়ায় আজাদ বিশ^াস এজন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

ফলশ্রুতিতে উক্ত সমাবেশে উপস্থিত প্রধান অতিথি পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আজাদ বিশ^াসের প্রশংসা করেন।
এরপর আরো বিতর্কিত হয়ে উঠেন এড. আজাদ বিশ^াস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here