নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি: বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি ও ইন্ডাষ্ট্রিয়াল পুলিশের মহাপরিচালক মো: নওশের আলী, পিপিএম বলেছেন, শিল্প পুলিশ একটি বিশেষায়িত ইউনিট। এই ইউনিটের নিরলস প্রচেষ্টায় শিল্পের চাকাকে সচল রাখতে কাজ করে যাচ্ছে।

৪০ লাখ শ্রমিকের অক্লান্ত পরিশ্রমের বিনিময়ে দেশের শিল্পখাত থেকে প্রতিবছর ৩০ বিলিয়ন ডলার মূল্যের পন্যসামগ্রী বিদেশে রপ্তানী করে অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখছে।

বুধবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডে অবস্থিত শিল্প পুলিশ-৪, নারায়ণগঞ্জ কর্তৃক আয়োজিত বিশেষ কল্যাণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শিল্প পুলিশ-৪, নারায়ণগঞ্জ এর ভারপ্রাপ্ত পরিচালক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: ইলতুৎ মিশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মতিউর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার জাকির হোসেন প্রমূখ।

এসময় তিনি আরো বলেন, শিল্প প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কোন শ্রমিকের সাথে খারাপ আচরণ, মাথায় আঘাত কিংবা গুলি করা যাবে না। যেটুকু না করলে না হয় তাই করতে হবে। কিছু অসাধু শ্রমিক নেতা শিল্প-কারখানায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। আর এসব শ্রমিক নেতাদের উচ্কানিতে কেউ যে শিল্প প্রতিষ্ঠানে অগ্নি সংযোগ এবং ভাংচুর করে ক্ষতি সাধন করতে না পারে সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে।

এছাড়াও কোন নারী শ্রমিক রাস্তায় যেন ইভটিজিং এবং প্রতিষ্ঠানে কোন কর্মকর্তা দ্বারা যেন হয়রানীর শিকার না হয় এমনকি বেতন নিয়ে বাসায় ফেরার পথে ছিনতাইকারীদের কবলে পড়লে তাদেরকে আইনী সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। সে জন্য নিরাপদ কর্ম পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।

অপরদিকে ঢাকার আশুলিয়ায় ছিনতাইর অভিযোগে গ্রেফতার শিল্প পুলিশ সদস্য সম্পর্কে তিনি বলেন, একটি লোকের কারণে পুলিশ বাহিনীর ২ লাখ লোকের অর্জিত সুনামে কলংকের কালিমা লেপন হয়েছে। যা কখনো কাম্য নয়। আমাদেরকে আরো সচেতন হয়ে এসব লোকদেরকে চিহ্নিত করে ভালো হওয়ার জন্য বুঝাতে হবে। যদি সে না সুদরায় তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here