নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: শীতলক্ষ্যার তীরে নদী ভরাট করে স্থাপিত ইকোপার্ক (চৌরঙ্গী পার্ক) উচ্ছেদসহ নদী রক্ষায় ১০ দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (বাপা)।

শুক্রবার (১৯ মে) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে বাপার যুগ্ম সম্পাদক মিহির বিশ্বাস বলেন, ‘শীতলক্ষ্যাসহ ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের আশপাশের প্রায় সব নদী অবৈধভাবে দখল ও মারাত্মক দূষণের শিকার হচ্ছে।’

অন্যদের মধ্যে বাপা সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন, নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি এ বি সিদ্দিকী ও সাধারণ সম্পাদক তারিক বাবু সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

মিহির বিশ্বাস জানান, ‘শীতলক্ষ্যার তীরে খানপুর বরফকল এলাকায় নদীর সীমানা প্রাচীরের কাছ থেকে ৩৩৭ নম্বর পিলারের পর প্রায় দুই একর জমি ভরাট করে ‘চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক’ নির্মাণ করা হয়েছে।

নদী দখল ঠেকাতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে হাই কোর্টকে জানানোর দায়িত্ব বিআইডব্লিউটিএ-এর ওপর থাকার পরও রাষ্ট্রায়ত্ত এই প্রতিষ্ঠান কেমন করে ওই পার্ক নির্মাণের অনুমতি দিল- সেই প্রশ্ন তোলেন মিহির বিশ্বাস।’

নদী রক্ষা সংক্রান্ত জাতীয় টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান ও নৌমন্ত্রী শাজাহান খান ওই ফ্যান্টাসি পার্কের উদ্বোধন করেন জানিয়ে বাপার যুগ্ম সম্পাদক বলেন, ‘মন্ত্রী কি করে এই পার্ক উদ্বোধন করলেন- তা সচেতন জনগণ অবশ্যই জানার অধিকার রাখে।’

নদী ভরাট করে গড়ে তোলা ওই পার্ক উচ্ছেদ করে নদীর আগের অবস্থা ফিরিয়ে আনতে সরকারের কাছে দাবি জানান মিহির।

নদীর ওপর গড়ে তোলা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ এবং হাই কোর্টের রায় বাস্তবায়ন, শীতলক্ষ্যা নদী দূষণ রোধ ও দখলমুক্ত করা এবং অপরিশোধিত বর্জ্য নদীতে ফেলা বন্ধেরও দাবি জানান তিনি।

কলামিস্ট আবুল মকসুদ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘ঢাকার চারপাশের চারটি নদী সংঘাতিকভাবে আক্রমণের শিকার। সরকারের প্রভাবশালীরা নদী দখল করছে, এটা অত্যন্ত বেদনাদায়ক।’

নদী মরে গেলে যে তীর ও আশপাশের এলাকার মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রার ব্যবস্থা থাকবে না- সে বিষয়ে হুঁশিয়ার করে তিনি বলেন, ‘সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর দায়িত্বহীনতার জন্য নদীগুলো দূষিত হয়ে যাচ্ছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here