নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বঙ্গপোসাগরে সৃষ্ট গভীর নিন্মচাপের ফলে গত দুই দিন যাবত টানা বর্ষণ শেষে এবার একটু একটু করে শীত জেঁকে বসতে শুরু করেছে।
সোমবার (১১ ডিসেম্বর) নারায়ণগঞ্জে বৃষ্টিপাত না হলেও দেখা মিলেনি সূর্যের। দিনভর অনেকটাই কুয়াশাচ্ছন্ন ছিল চারদিক। ঘরে কিংবা বাহিরে সর্বত্রই যেন শীত অনুভূত হয়েছে জনসাধারনের মাঝে। যার মধ্যে গরম কাপড়ের অভাবে সবচেয়ে বেশী কষ্ট পোহাতে হয়েছে অসহায় মানুষদের। কেননা, শীতের প্রকোপ বাড়তে শুরু করলেও এখনো অবদি অসহায় মানুষের পাশে বিত্তবানসহ বিভিন্ন সংস্থার সহায়তায় শীতবস্ত্র বিতরন তেমন ভাবে শুরু হয়নি।

আর শীতের প্রকোপে গরম উষ্ণতা পেতে অসহায় মানুষদের সড়কের ধারে আগুন জ¦ালিয়ে তাপ নিতে দেখা যায়। বিশেষ করে নগরীর শেষ প্রান্ত সৈয়দপুর, আলামিন নগর, বন্দর উপজেলার সাবদী, কেউঢালা, মদনপুর, রূপগঞ্জ, আড়াইহাজার, সোনারগাঁ উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামে সোমবার দিনভর কুয়াশাচ্ছন্ন থাকায় শীত অনুভূত হয়েছে বলে জানান, সেখানকার প্রতিনিধিরা।

জানাযায়, বাংলাদেশে ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত শীতের মৌসুম ধরা হয়। এ সময় শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তরাঞ্চল এবং নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি বা ঘন কুয়াশা এবং অন্যান্য স্থানে হালকা থেকে মাঝারী কুয়াশা থাকে।

আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, পঞ্জিকার খাতা ধরে ডিসেম্বরের শেষার্ধেই এবার শীত বাড়তে থাকবে। মাসের প্রথমার্ধে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় সামান্য বেশী থাকলেও মাসের শেষভাগে তা কমে আসবে।

আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস জানান, নি¤œচাপ কেটে গেছে, মেঘাচ্ছন্ন আকাশও পরিষ্কার হচ্ছে। তবে কয়েকদিন পর থেকে রাতে শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে। তাপমাত্রা কমতে থাকায় মাসের দ্বিতীয়ার্ধে কিছু এলাকায় শৈত্যপ্রবাহও বিরাজ করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here