নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: পুলিশ সুপারের কাছে সরকারি তোলারাম কলেজের ছাত্র শাহরিয়ার শুভ্র হত্যার দ্রুত অভিযোগ পত্র দাখিল ও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের নিরাপত্তা বৃদ্ধির দাবী জানিয়েছেন সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের নেতৃবৃন্দ।
বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে গিয়ে পুলিশ সুপার মঈনুল হকের সাথে সাক্ষাৎ করে এই দু’টি দাবী জানান তারা।

শুভ্রর ঘাতকরা যাতে আইনের ফাঁক-ফোঁকর দিয়ে আদালত থেকে বেরিয়ে আসতে না পারে সেভাবে অভিযোগ পত্র তৈরী করার এবং ঘাতকরা যাতে সর্বোচ্চ শাস্তি পায় তা নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ সুপারের কাছে দাবী জানান ত্বকী মঞ্চের নেতৃবৃন্দরা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক রফিউর রফিউর রাব্বি, যুগ্ম আহ্বায়ক নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি এড. মাহাবুবুর রহমান মাসুম, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সভাপতি এড. এবি সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি এড. জিয়াউল ইসলাম কাজল, বাসদ জেলা সমন্বয়ক নিখিল দাস, ওয়ার্কার্স পার্টি জেলা সম্পাদক হিমাংসু সাহা ও গণসংহতি আন্দোলনের শহর সংগঠক পপী রানী সরকার।

এছাড়াও নেতৃবৃন্দরা এসপিকে বলেন, ‘ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সংযোগ সড়কটি বহু বছর ধরেই অপরাধের অভয়ারণ্য হয়ে আছে। সাত খুনের অপহরণ, পরিবেশ কর্মী রেজোয়ানার স্বামী এবি সিদ্দিক অপহরণ, বাস থামিয়ে লক্ষ-লক্ষ টাকা ছিনতাই সহ বহু অপহরণ, ছিনতাই ও হত্যার ঘটনা এখানে অহরহ ঘটলেও তা থেকে উত্তরণের জন্য প্রশাসনের তেমন উদ্যোগ নেই।’

তাই ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে টহল পুলিশের তৎপরতা বৃদ্ধি, চেক-পোস্টের তৎপরতা বৃদ্ধি জোরদার করার দাবী জানান, ত্বকী মঞ্চের নেতৃবৃন্দরা। এসময় পুলিশ সুপার তাদের সাথে একমত পোষণ করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ^াস দেন এবং সিটি কর্পোরেশেনের মাধ্যমে সড়কের দুই পাশে বৈদ্যুতিক বাতি বসানোর উদ্যোগ গ্রহণে ঐক্যমত্য হন।

উল্লেখ্য, গত ৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ভোর ৬টায় সরকারি তোলারাম কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শাহরিয়াজ মাহমুদ শুভ্র নিখোঁজ হন। এর ২ দিন নিখোঁজ থাকার পর ফতুল্লা থানাধীন ভুঁইগড় এলাকায় অজ্ঞাত অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়। তারপর ১০ সেপ্টেম্বর পরিবারের সদস্যরা সেই লাশের জুতা শার্ট ও আনুসাঙ্গিক শুভ্রকে সনাক্ত করে।

এরপর গত ১১ সেপ্টেম্বর রাতে ঢাকার শনি আখড়া এলাকা থেকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ শুভ্র হত্যায় জড়িত ৪ ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেন।

এরা হলেন, আল আমিন (২৬), জুয়েল (২৪), অমিত (২২) ও জালাল (২৮)। পরে এদিন বিকেলে তাদের আদালতে প্রেরণ করলে তন্মধ্যে দুইজন আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here