নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: জাতীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি আলহাজ্ব শুক্কুর মাহমুদ বলেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনার শাসন আমলে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। সারা দেশ আজ ডিজিটালে রূপান্তরিত হয়েছে। তার প্রমান স্বরূপ আপনারা দেখছেন ঢাকার ফ্লাইওভারগুলো তৈরী করা। খালেদা জিয়া আর এরশাদের আমলে দেশে কোন ফ্লাইওভার তৈরী হয়নি। পদ্মা সেতু তৈরী হচ্ছে আমাদের নিজেদের দেশের অর্থায়নেই। এখন খালেদা জিয়া বলে বেড়াচ্ছেন দেশে নাকি কোন প্রকার উন্নয়ন হয়নি।

শনিবার (১৯ আগষ্ট) বিকাল ৪টায় জাতীয় যুব শ্রমিকলীগ নারায়ণগঞ্জ জেলার আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৪২তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও কাঙ্গালী ভোজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীরা ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগষ্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে খুনিরা ভেবেছিল সব কিছুই তারা নিয়ে নিবে। কিন্তুু আল্লাহর অশেষ রহমতে তার দুই কন্যা শেখ হাসিনা আর শেখ রেহানা আজও বেঁচে আছে। আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শাসন আমলে শ্রমিকরা মালিক হয়েছেন। তারা নিজেদের কষ্টের টাকা আয় রোজগার করে ঘরে নিতে পারছেন। কিন্তুু ওই খালেদা জিয়ার আমলে শ্রমিকরা একটি পয়সাও ঘরে নিতে পারেনি। দেশে এখন বাসা বাড়ির কাজের জন্য গৃহকর্মী পাওয়া যায় না। গ্রামের মেয়েরা শহরে এসে কাজ করতে পারছেন। আমাদের সরকার ক্ষমতায় আসার পর ঘোষনা করেছেন কোন শ্রমিক মারা গেলে তার পরিবারকে ৩ লাখ টাকা প্রদান করা হবে। তাছাড়া শ্রমিকদের বাসস্থান নির্মান করার জন্য তাদেরকে বাড়ি তৈরী করে দেওয়া হবে। আর সেই বাড়ির মালিক ভবিষ্যতে তিনিই হবেন। দেশের গ্রাম অঞ্চল গুলো আজ অনেক আধুনিক হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, মনে রাখবেন স্বাধীনতা যুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের মানুষই প্রথম বঙ্গবন্ধুর ডাকে সেদিন সাড়া দিয়ে যুদ্ধে অংশগ্রহন করেছিলেন। খালেদা জিয়া সেনাবাহিনীকে দিয়ে আবার ক্ষমতায় আসার স্বরযন্ত্র করছেন। লন্ডনে বসে তার ছেলে তারেক রহমানকে নিয়ে তিনি কি মিটিং করছেন বাংলার জনগন তা জানে। কিন্তুু এদেশের জনগন তাদের মনের বাসনা কখনো পূর্ণ করতে দিবে না। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুঁনিদের বিচার দ্রুত করার দাবি জানাই আমরা। স্বাধীনতা বিরোধীদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে আগামী নির্বাচনে নৌকার মাঝিদের জয়লাভ করাতে হবে। আমারা নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনেই নৌকার জয় চাই। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, আপনারা পত্রিকার পাতায় আবল-তাবল কিছু লেইখেন না। ওই বিএনপি, জামায়াত-শিবিরের কর্মকান্ড গুলো দেখেন তারপর লেখেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় শ্রমিকলীগের নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারন সম্পাদ মাঈনুদ্দিন আহমেদ বাবুল, জাতীয় যুব শ্রমিকলীগের নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি এ,কে,এম ওবায়দুল হক আরিফ, সহ-সভাপতি হাজী আরিফ হোসেন পাখি, মোঃ হাসান, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মোক্তার হোসেন, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোঃ সাহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী মোঃ লিটন, আনিসুর রহমান, মোঃশহিদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক শিবু কুমার দাস সহ অন্যান্য শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here