প্রেস বিজ্ঞপ্তি: শ্রম আইন ২০০৬ এর ২৩,২৬,২৭,১৭৯ নং ধারাসহ শ্রম আইনের সকল অগণতান্ত্রিক ধারাসমূহ বাতিল ও আই,এল,ও কনভেনশন ৮৭ ও ৯৮ এর আলোকে গণতান্ত্রিক শ্রম আইন প্রণয়নের দাবিতে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট গাবতলী-পুলিশ লাইন শাখার উদ্যোগে মঙ্গলবার বিকাল ৪টা-৫টা মাসদাইরে চোধুরী কমপ্লেক্স এর সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট গাবতলী-পুলিশ লাইন শাখার সভাপতি সাইফুল ইসলাম শরীফের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম গোলক, গাবতলী-পুলিশ লাইন শাখার সাধারণ সম্পাদক হাসনাত কবীর, সহ-সভাপতি শহীদুল ইসলাম, মোঃ মমিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন, খোরশেদ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ সাজু।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশ ১৯৭২ সালে আই,এল,ও কনভেনশনে অনুস্বাক্ষর করার ৪৫ বছর অতিক্রমের পরও আই,এল,ও কনভেনশন ৮৭ ও ৯৮ এর আলোকে শ্রম আইন প্রণয়ন করা হয়নি। ২০০৬ সালে প্রণিত শ্রম আইন দেশের শ্রমিক সংগঠনগুলো প্রত্যাখ্যান করলে বর্তমান সরকার শ্রম আইন সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসে ২০১৩ সালে শ্রম আইনের যে সংশোধনী পাশ করেছে এবং ২০১৫ সালে যে শ্রম বিধিমালা জারি করেছে তাতে শ্রমিকের অধিকার তো প্রতিষ্ঠিত হয়নি তা আরো সংকোচিত হয়েছে। বর্তমানে শ্রম আইন সংশোধনের যে প্রক্রিয়া চলছে তাতে শ্রমিক নেতৃবৃন্দের মতামতকে যথাযথ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে না। শ্রম আইন ২০০৬ এর ২৩,২৬,২৭,১৭৯ নং ধারাসহ শ্রম আইনের সকল অগণতান্ত্রিক ধারাসমূহ বাতিল ও আই,এল,ও কনভেনশন ৮৭ ও ৯৮ এর আলোকে গণতান্ত্রিক শ্রম আইন প্রণয়নের দাবি জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন মালিক শ্রেণির স্বার্থে শ্রম আইন প্রণিত হলে দেশে শ্রমিকরা তা প্রত্যাখ্যান করে ঐক্যবদ্ধ কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলবে।

নেতৃবৃন্দ মজুরি বোর্ড পুণর্গঠন করে ন্যূনতম মজুরি ১৫ হাজার ঘোষণা এবং কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে আজীবন আয়ের সমান ক্ষতিপুরণ প্রদানের বিধান করার দাবি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here