নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জে একটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল ও দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে বন্দরে একটি প্রশিক্ষন কেন্দ্র নির্মাণ করা হবে। আর এই বড় দুটি উন্নয়ন মূলক কাজে সরকারের পাশাপাশি অংশ গ্রহণ করবে নীট গার্মেন্টস ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বিকেএমইএ। যে সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্বে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান।
রবিবার (২৯ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নুর তাঁর কার্যালয়ে বিকেএমইএ’র সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের নেতৃত্বে বিকেএমইএ প্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা সভায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাননীয় সচিব আফরোজা খানম, বিকেএমইএ’র প্রথম সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ, দ্বিতীয় সহ-সভাপতি ফজলে শামীম এহ্সান এবং সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম।

সভায় সেলিম ওসমান নারায়ণগঞ্জে শ্রম কল্যাণ কেন্দ্রে দীর্ঘ দিন ধরে প্রস্তাবিত থাকা শ্রমিকদের জন্য হাসপাতাল করার প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে সেটি দ্রুত বাস্তবায়ন করার ব্যাপারে জোর দাবী রাখেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু ২০১৭ সালের মধ্যে নারায়ণগঞ্জের শ্রম কল্যাণ কেন্দ্রের জায়গায় শ্রমিকদের জন্য ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট অত্যাধুনিক সুবিধা সম্বলিত একটি হাসপাতাল নির্মাণের বিষয়টি বিকেএমইএ সভাপতিকে অবহিত করেন। নীট শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে অন্যান্য বিভাগের পাশাপাশি কারখানায় দুর্ঘটনায় পুড়ে যাওয়া রোগীদের জন্য বার্ন ইউনিট গঠনের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে। ৩০০ শয্যার মধ্যে ১০০টি শয্যা শ্রমিকদের জন্য বিশেষ সেবা প্রদান করা হবে। বাকি ২০০ শয্যার মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষদের উন্নত চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে। ভারতের একটি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান ও বাংলাদেশ সরকার যৌথভাবে পিপিপি এর মাধ্যমে হাসপাতালটি নির্মান করা হবে।

এরপর সভাপতি নীট শিল্পে দক্ষ শ্রমিকের ঘাটতি আছে উল্লেখ করে বন্দরে শ্রম অধিদপ্তরের জমিতে দক্ষ শ্রমিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য প্রতিমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান রাখেন। তিনি বলেন, শুধু নীট শিল্পের শ্রমিকরাই নয়, এই ট্রেনিং সেন্টারে যে কোনো উৎপাদনশীল কারখানা বা শিল্পের শ্রমিকরা প্রশিক্ষণ গ্রহণের সুযোগ পাবে। ফলে একদিকে, দক্ষ শ্রমিকের ঘাটতি পূরণ হবে এবং অন্যদিকে শিল্পের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি পাবে। প্রশিক্ষন কেন্দ্রের পাশাপাশি বন্দরের ওই জমিতে শ্রমিকদের জন্য একটি বহুতল ভবন, অডিটরিয়াম, ডরমেটরি নির্মাণের প্রস্তাব রাখেন। প্রতিমন্ত্রী বিকেএমইএ’র উত্থাপিত প্রস্তাবটিকে অত্যন্ত সময়োপযোগী উল্লেখ করে বলেন দ্রুত সময়ের মধ্যে বিকেএমইএ ও শ্রম মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জের বন্দরে একটি দক্ষ শ্রমিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তৈরির আশ্বাস প্রদান করেন। এছাড়াও ভবিষ্যতে দুবাই, রিয়াদ ও জেদ্বাতে বিকেএমইএ যে একক নীট এক্সপোজিশন আয়োজন করবেন, সেখানে প্রতিমন্ত্রী বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগদান করার আশ্বাস প্রদান করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here