নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ‘জাতীয় সংসদ সদস্যরা বার বার নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারলেও বিজ্ঞ আইনজীবীরা কেন টানা ২ বারের বেশী নির্বাচন করতে পারবেন না’- এমন যুক্তি উপস্থাপন করে নির্বাচনী ধারা বাতিলের দাবী জানিয়েছেন সিনিয়র আইনজীবীরা। আগামী ৩০ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সাধারন সভায় এবিষয়ে আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে।

জানাগেছে, বর্তমান বিধান অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে যেকোন পদের বিপরীতে একজন আইনজীবী একটানা দুই বছর নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার সুযোগ পান। কিন্তু বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ক্ষেত্রে এমন বাধ্যবাধকতা নেই।

তাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের গঠনতন্ত্র ও বিধিমালা অনুচ্ছেদ ৩৪ এর ‘গ’ ধারা বাতিলের দাবী জানিয়ে আইনজীবী সমিতিতে লিখিত আবেদন করেছেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রায় দেড়শ জন সিনিয়র আইনজীবী।

যেখানে স্বাক্ষর করেছেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির প্রথম সদস্য ও সাবেক সভাপতি এড. আমিনুল হক, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য এড. খোকন সাহা, সিনিয়র আইনজীবী এড. এমদাদুল হক তারাজউদ্দিন, এড. আলী আহম্মদ, এড. নারায়ণ চন্দ্র ঘোষ, এড. মোস্তফা করিম, এড. মাহমুদা মালা, এড. সুইটি ইয়াসমিন, এড. কামরুন্নাহার ময়না, এড. শাহনাজ সম্পাসহ প্রায় দেড় শতাধিক আইনজীবী।

আবেদনে উল্লেখ করা হয়, জাতীয় সংসদ সদস্যদের বার বার নির্বাচিত হওয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে এমন বিধান না থাকায় একজন বিজ্ঞ আইনজীবী টানা ২ বছরের বেশী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারেন না। তাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের গঠনতন্ত্র ও বিধিমালা অনুচ্ছেদ ৩৪ এর ‘গ’ ধারা বাতিলের দাবী জানানো হলো।

এব্যাপারে একজন সিনিয়র আইনজীবী বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির এই নির্বাচনী ধারাটি সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক। যেহেতু সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে এমন বিধান নেই, সেহেতু নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রেও টানা দুই বছরের বেশী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে না পারার বিধান বাতিল করতে হবে।’

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক এড. হাবিব আল মুজাহিদ পলু নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, ‘নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের গঠনতন্ত্র ও বিধিমালা অনুচ্ছেদ ৩৪ এর ‘গ’ ধারা বাতিলের দাবী জানিয়ে সমিতির প্রায় দেড় শতাধিক সিনিয়র আইনজীবী সদস্য আবেদন জানিয়েছেন। আগামী ৩০ আক্টোবর সমিতির বার্ষিক সাধারন সভায় এই বিষয়টি উপস্থাপন করা হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here