নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনে ‘নৌকা’ প্রত্যাশায় যখন এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত দাবড়িয়ে বেড়াচ্ছিলেন ক্ষমতাসীন দলের সংসদ সদস্য পদ প্রার্থীরা, ঠিক তখনই প্রথমবারের মত নারায়ণগঞ্জে এসে স্থানীয় জাতীয় পার্টির এমপির অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে আতীথিয়তায় মুগ্ধ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলে গেলেন, আগামী নির্বাচনে আবারো এমপি হবেন সেলিম ওসমান, অন্য কেউ নয়।
শুধু তাই নয়, উক্ত আসন থেকে জাতীয় পার্টির এই এমপিকেই যেন আগামীতেও মনোনয়ন দেয়া হয়, সে ব্যাপারে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদকেও বলবেন বলে সড়কমন্ত্রী সবাইকে আশ^াস দিয়ে যান।

আর আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মুখে জাতীয় পার্টির এমপি সেলিম ওসমানের গুনকীর্ত্তণ করার পাশাপাশি মনোনয়ন প্রাপ্তিতে যদি সত্যিই তিনি সহায়তা করেন, তাহলে সদর-বন্দর আসনে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ‘নৌকা’ প্রত্যাশীদের ‘কঁপাল’ পুড়লো বলে মন্তব্য করেন তৃণমূল নেতৃবৃন্দরা।

কেননা, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সদর-বন্দর আসনে দলীয় প্রার্থী দেয়ার জোড় দাবী জানানোর পাশাপাশি ‘নৌকা’ প্রত্যাশায় রীতিমত মাঠ দাবড়িয়ে বেড়াতে শুরু করে দিয়েছেন সম্ভাব্য এমপি পদ প্রার্থীরা।

যাদের মধ্যে আলোচনায় আছেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের জাতীয় নির্বাহী পরিষদের সদস্য এড. আনিসুর রহমান দিপু, জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আলহাজ¦ শুক্কুর মাহমুদ, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো: শহিদ বাদল, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এড. খোকন সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক জি এম আরাফাত, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া, জেলা যুবলীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদির, শহর যুবলীগ সাধারন সম্পাদক আলী আহাম্মদ রেজা উজ্জল, যুবলীগ নেতা আবু সফিয়ান ও জেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক থেকে পদত্যাগকারী নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের আওয়ামীলীগের সাবেক এমপি এস এম আকরাম ।

যারা আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশায় তৃণমূলকে সংগঠিত করার পাশাপাশি শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়ণ কর্মকান্ড জনগণের সামনে তুলে ধরতে নানা কর্মসূচী পালন করে যাচ্ছেন। কিন্তু শেষতক যদি আগামী নির্বাচনের পূর্বে আওয়ামীলীগের সাথে জাতীয় পার্টি জোট গঠন করে নির্বাচনে অংশ নেন, তাহলে নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনে পুনরায় বর্তমান এমপি সেলিম ওসমানের ভাগ্যেই যে জুটবে মনোনয়ন, তা অনেকটাই স্পষ্ট হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

কারন, হিসেবে তারা বলেন, কয়েক মাস পূর্বে বন্দরে আরেকটি স্কুলের উদ্বোধনীতে এসে আগামী নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে সেলিম ওসমানের নাম ঘোষণা করে গিয়েছিলেন খোদ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ।

আর এবার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও আগামী নির্বাচনে উক্ত আসনে যেন সেলিম ওসমানই পুনরায় মনোনয়ন পান, সেই ব্যাপারে শেখ হাসিনা ও এরশাদকে বলবেন বলে দিয়ে গেছেন আশ^াস।

তাই আগামী নির্বাচনেও সেলিম ওসমানের মনোনয়ন প্রাপ্তিটা যে নিশ্চিত আর ‘নৌকা’ প্রত্যাশীদের কঁপাল পুড়তে যাচ্ছে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না বলে মন্তব্য করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ একেএম সেলিম ওসমানের অর্থায়নে বন্দরে নির্মিত তিনটি স্কুল উদ্বোধনীতে গত ২৩ নভেম্বর প্রথমবারের মত নারায়ণগঞ্জ আসেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এরপর মদনপুর ইউনিয়নের বাগদোবাড়িয়া এলাকায় নাগিনা জোহা উচ্চ বিদ্যালয় ও ধামগড় ইউনিয়নের হালুয়াপাড়া দশদোনা এলাকায় শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্বোধনের পূর্বে বন্দরের ত্রিবোনী মিনারবাড়ি এলাকায় শামসুজ্জোহা মুছাপুর বন্দর (এম.বি) ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্বোধনের পর এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে ওবায়দুল কাদের জাতীয় পার্টির সাংসদ সেলিম ওসমানের আতীথিয়তায় মুগ্ধ হয়ে ভূয়সী প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, ‘সেলিম ওসমান সাহেব আমার একজন প্রিয় মানুষ। তার এত গুণের সমাহার একজন মানুষের মধ্যে এটি ভাবতেও অবাক লাগে। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, একজন সফল ব্যবসায়ী, একজন সফল শিল্পপতি, একজন সফল কৃষক, একজন সফল সংগঠক, একজন সফল শিক্ষানুরাগী এবং সবশেষ একজন সফল রাজনৈতিক ও জনপ্রতিনিধি। একজন মানুষের মধ্যে এত গুনের সমাহার তিনি হচ্ছেন নারায়ণগঞ্জের জনপ্রিয় সেলিম ওসমান।’

এ সময় অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত শিক্ষার্থী সহ আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীসহ স্থানীয় জনসাধারন একত্রে শ্লোগান তুলেন ‘সেলিম ভাইকে আবারো এমপি হিসেবে চাই’।

ওবায়দুল কাদের তখন সবাইকে উদ্দেশ্য করে জানতে চান, ‘আপনারা সেলিম ওসমানকে আবারো এমপি চান’? সকলে একত্রে ‘হ্যাঁ’ বলেন জবাব দেন।

এরপর মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি এখানে এসে মানুষের ভালবাসা পেয়ে মুগ্ধ। সেলিম ওসমানকে মানুষ এতো ভালবাসে, একজন মানুষ জনগনের কাছে এতো জনপ্রিয় হতে পারে নিজের চোখে না দেখলে বিশ্বাস করতাম না। মানুষের উপস্থিতি দেখে আমি অবাক হয়ে গেছি। সেলিম ওসমান আসলে কোন দলের রাজনীতি করে? সে জাতীয় পার্টির এমপি অথচ মুখে বলে বঙ্গবন্ধুর কথা আওয়ামীলীগের কথা। আসলে সেলিম ওসমানকে এমপি হিসেবে আপনাদের চাইতে হবে না। যাকে মানুষ এতো ভালবাসে সেখানে সে ছাড়া আর কে এমপি হবে। আপনাদের কথাটা আমি আপাকে (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) বলবো। এরশাদ সাহেবকেও বলবো। সেলিম ওসমান আবারো এমপি হবে।’

যার ফলশ্রুতিতে সেলিম ওসমানও অশ্রুজলে নারায়ণগঞ্জ থেকে বিদায় জানান সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here