নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে উস্কানীমূলক স্ট্যাটাসের জেরে রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর ঠাকুরপাড়া গ্রামে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে জাতীয় হিন্দু মহাজোট নারায়ণগঞ্জ জেলা।
শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) সকাল ১০টায় নগরীর চাষাড়াস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি মানিক চন্দ্র সরকার এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক বিচারক শ্রীমতি ঝুমুর গাঙ্গুলী।

অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা হিন্দু মহাজোটের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি- সুভাষ সাহা, সাধারন সম্পাদক অ্যাড. রঞ্জিত চন্দ্র দে, দপ্তর সম্পাদক গোপাল চন্দ্র মন্ডল, যুগ্ম-মহাসচিব- সম্ভুনাথ সাহা, প্রচার সম্পাদক-শ্যামল রায়, সহ-প্রচার সম্পাদক-সঞ্জীব মন্ডল, সহ-সমাজ কল্যাণ ও ত্রাণ সম্পাদক লোকনাথ বিশ্বাস, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শান্তি রঞ্জণ দাস, হিন্দু মহাজোট বন্দর উপজেলা সভাপতি শংকর দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক নিরঞ্জন দাস, আড়াইহাজার আহ্বায়ক রঞ্জন চক্রবর্তী, হিন্দু যুব মহাজোট বন্দর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক রঞ্জিত দাস, হিন্দু ছাত্র মহাজোট বন্দর উপজেলা সভাপতি বিনয় কুমার মন্ডল, সাধারণ দাস পার্থ সরাথী দাসসহ হিন্দু মহাজোটসহ যুব ও ছাত্র মহাজোটের জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে রামু ও নাসির নগরের মতো রংপুরের ঠাকুরপাড়ার হিন্দু পল্লীতে যে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটানো হয়েছে তা অবশ্যই পূর্বপরিকল্পিত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের আশা ভরসার প্রতীক। আমরা আশা করি, তিনি এ ঘটনার বিচার করবেন এবং প্রকৃত দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করবেন।

বক্তারা আরও বলেন, অবিলম্বে হামলার পরিকল্পনাকারী, উসকানিদাতা ও হামলাকারীদের দল মত নির্বিশেষে বিচারের আওতায় আনতে হবে। সেই সাথে এ ধরনের সাম্প্রদায়িক হামলা প্রতিরোধে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here