নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, বন্দর প্রতিনিধি: চাষাড়ায় রোহিঙ্গা পরিচয়ে আটক সেই প্রতারক যুবক আব্দুল্লাহ (২৫) আবারো রোহিঙ্গা পরিচয় দিয়ে আটক হলো বন্দর থানায়।
সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বন্দর ফায়ারঘাট এলাকা থেকে তাকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করা হয়।

আটককৃত যুবক আব্দুল্লাহ প্রথমে ফায়ারঘাট এলাকায় স্থানীয় জনতাকে জানায় সে মিয়ানমার নাগরিক। তার পিতার নাম সোলেমান মায়ের নাম ফুলমতি সে মিয়ানমার মধ্যম বাড্ডাই জেলার গিট্টি থানার আলদা গ্রামের বাসিন্দা। মিয়ানমার সামরিক বাহিনী বিগত ৪ বছর পূর্বে তাকে হত্যার জন্য তার এক পায়ে গুলি করে ওই পায়ে কুপিয়ে জখম করে তাকে পঙ্গু করে দেয়।

প্রানের ভয়ে এখানে পালিয়ে এসেছি। জনতা বিষয়টি জানতে পরে রোহিঙ্গা যুবককে উদ্ধার করে বন্দর থানা পুলিশে সোর্পদ করে। পরে বন্দর থানা পুলিশ রোহিঙ্গা পরিচয় দানকারী যুবক আব্দুল্লাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পর আটককৃত যুবক প্রতারক আব্দুল্লাহ প্রানের ভয়ে সত্যতা প্রকাশ করে।

প্রতারক যুবক পুলিশকে জানায়, তার প্রকৃত নাম মাহাবুব তার পিতার নাম মোক্তার হোসেন সে ফতুল্লা থানার কাশিপুর ইউনিয়নস্থ আলসাবা আবাসিক এলাকায় ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছে।

সে আরো জানায়, আমি বিভিন্ন স্থানে ভিক্ষা করে দিন কাটাই। রোহিঙ্গা পরিচয় দিয়ে সাহায্য চাইলে সবাই আমাকে বেশি বেশি করে টাকা দেয় ও বিভিন্ন ভাবে সাহায্য করে। বেশি টাকা আদায় করার জন্য বন্দর ফায়ারঘাটে রোহিঙ্গা পরিচয় দিয়েছি। আমি রোহিঙ্গা নই। এই রির্পোট লেখা পর্যন্ত আটককৃক যুবক থানা হাজতে আটক আছে বলে থানা সূত্রে জানা গেছে।

এরআগে, সম্প্রতি রোহিঙ্গা পরিচয় দেয়ায় চাষাড়ায় জনতার হাতে আটক হন সেই প্রতারক আব্দুল্লাহ। পরবর্তীতে সদর মডেল থানা পুলিশ তাকে খানপুর ৩’শ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে কক্সবাজার উখিয়া ক্যাম্পে প্রেরণের সময় জানতে পারে আব্দুল্লাহ মানসিক ভারসাম্যহীন। পরবর্তীতে তাকে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here