নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের মহাজোট সমর্থিত প্রার্থী আলহাজ্ব এ.কে.এম সেলিম ওসমানের পক্ষে লাঙ্গল প্রতীকে ভোট চেয়ে নগরীর বৃহত্তর দেওভোগ মার্কেটে নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়ে মাঠ চষে বেড়িয়েছেন বাংলাদেশ হোসিয়ারী এসোসিয়েশনের সভাপতি ও নাসিক ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ নাজমুল আলম সজল। প্রচারনা আগে নগরীর দেওভোগ সোহরাওয়ার্দী মার্কেটে দেওভোগ পোশাক প্রস্তুতকারক মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দের সাথে কাউন্সিলর সজল নির্বাচনের বিষয় নিয়ে আলোচনা সভা করেন।

সোমবার (১৭ ডিসেম্বর) সকালে অনুষ্ঠিত ওই আলোচনা সভায় আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের মহাজোট মনোনীন প্রার্থী আলহাজ্ব একেএম সেলিম ওসমানকে কেন লাঙ্গল প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন এমন প্রশ্ন রেখে বিগত বছরগুলোতে সেলিম ওসমানের উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে নাজমুল আলম সজল বলেন, সেলিম ওসমানই একমাত্র ব্যক্তি যিনি নারায়ণগঞ্জে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী সহ সবাইকে উন্নয়নের অংশীদার করেছেন। নিজ তহবিল থেকে নারায়ণগঞ্জ-বন্দরে স্কুল কলেজ মসজিদ মাদ্রাসার উন্নয়ন করেছেন। নিজের টাকায় ঈদের সময় অসহায় মানুষের হাতে ঈদ সামগ্রী তুলে দিয়েছেন। আমরা তাকে জাতীয় পার্টির এমপি বলি। কিন্তু তিনি জাতীয় পার্টির এমপি হলেও জনগনের উন্নয়নে কাজ করার সময় আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি বিবেচনা করেননি। সবাইকে এক কাতারে ডেকে নিয়ে জনগন এবং দেশের উন্নয়নের স্বার্থে নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন।

সেলিম ওসমানের এমন উন্নয়নমূলক কাজের কারনেই সকল ব্যাবসায়ীক সংগঠন তাকে আগামী নির্বাচনে অকুন্ঠ সমর্থন জানিয়েছে উল্লেখ করে কাউন্সিলর সজল আরো বলেন- ‘সেলিম ওসমান এমপি হয়েছিল বলেই নারায়ণগঞ্জ আজ সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত। আজ ব্যবসা করতে আমাদের কাউকে কোন ধরনের চাঁদা দিতে হয়না। উনি এমপি হয়েছিলেন বলেই আমাদের সন্তানেরা সুশিক্ষার সুযোগ পেয়েছে। তিনি বন্দরের ৭টি ডিজিটাল কম্পিউটারাইজড স্কুল প্রতিষ্ঠা করেছেন সম্পূর্ন নিজস্ব অর্থায়নে। শুধু তাই নয় নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী মর্গ্যান গার্লস স্কুলের উন্নয়নের জন্য নিজস্ব তহবিল থেকে ৩ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন। যার মধ্যে ২ কোটি টাকা ইতিমধ্যেই তিনি দিয়ে দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, মসজিদ মাদ্রাসার উন্নয়নেও সেলিম ওসমান নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছেন। খুব দুরে যেতে হবে না, আমাদের এলাকার বায়তুস শরীফ জামে মসজিদে কিছুদিন আগে ৫০ লক্ষ টাকা উন্নয়নের জন্য তিনি অনুদান দিয়েছেন। যার মধ্যে ২৫ লক্ষ টাকা মসজিদ কমিটির সভাপতির কাছে হস্তান্তর করেছেন।’

পরিশেষে নাজমুল আলম সজল সকলের উদ্দেশ্যে বলেন- ‘এমন অবস্থায় আমাদেরকেই ঠিক করতে হবে আগামী ৫ বছর ভালো থাকতে হলে আমরা কোন প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবো।’ এসময় উপস্থিত সকলেই স্বতস্ফুর্তভাবে সেলিম ওসমানের পক্ষে হাত তুলে নির্বাচনে তাকে লাঙল প্রতীকে ভোট দিয়ে উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে আরো এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকার ব্যাক্ত করেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন দেওভোগ পোশাক প্রস্তুতকারক মালিক সমিতির সভাপতি নিলু ভুইয়া, প্রধান উপদেষ্টা হাজ্বী মোঃ রফিকুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক বাবুল দেওয়ান, সালাম তালুকদার,নারায়ণগঞ্জ আইন কলেজের সাবেক ভিপি ও সাবেক ছাত্রদল নেতা আবদুস সালাম বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মাহাবুবুল আলম চঞ্চল, মর্গ্যান গার্লস স্কুল এর গভর্নিং বডির সদস্য সুনয়ন মাহামুদ সুপন, মোঃ আরজু, ১৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন সোহেল, মোঃ জুয়েল ভুইয়া প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here