নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ জেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি চন্দন শীল বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল। কিন্তু পাকিস্তানী দোষররা, যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা কে মেনে নিতে পারেনি, সেই চক্র ৭৫ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সহ পরিবারে হত্যা করে। এই হত্যাকান্ডের মধ্য দিয়ে তারা এদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব কে মুছে ফেলতে চেয়েছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার অক্লান্ত চেষ্টায় আমরা জাতির পিতা সহ জাতীয় চার নেতা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার পেয়েছি। আমি যুদ্ধ দলিল গণহত্যায় বইটি বের করে বর্তমান প্রজন্মের কাছে স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস তুলে ধরার সবাই ধন্যবাদ জানাই। কারন এটি একটি মহৎ কাজ দেশের জন্য।

রবিবার (২৫ মার্চ) দুপুরে যুদ্ধ দলিল নারায়ণগঞ্জ জেলার আয়োজনে নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজে প্রাঙ্গণে ২৫ মার্চ আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবসের দাবি ও যুদ্ধ দলিল গণহত্যার বই শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের পূর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথাগুলো বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ কমল কান্তি সাহা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ সাফায়েত আলম সানি, জেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির প্রচার সম্পাদক মিজানুর রহমান সজীব, যুদ্ধ দলিল প্রজেক্ট ম্যানেজার বিদ্যুৎ দিকাশ মজুমদার অপু, নাট্যকার ফাহিম ভূঁইয়া, নাট্য নির্দেশক রনক রিপন, জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মিনহাজুল ইসলাম রিয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান নান্নু, জয় বাংলা ক্লাবের সভাপতি নিশাদ, রনি, কবির হোসেন প্রমুখ।

পরে নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে যুদ্ধ দলিল গণহত্যার বইটি বিতরন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here