নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: জাতি, ধর্ম, বর্ণ নিবির্েিশষে প্রাণের উচ্ছাসে বর্ষবরণ উদযাপন করে হেফাজতে ইসলাম নারায়ণগঞ্জ জেলা আমীর মাওলানা আব্দুল আউয়ালের মুখে ঝাঁমা ঘষে দিলে উৎসব প্রেমী নারায়ণগঞ্জবাসী।
ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জের মুসলমান ও সনাতন ধর্মালম্বীরা দু’দিন ব্যাপী পহেলা বৈশাখ উদযাপন করে হেফাজতে ইসলামকে জানিয়ে দিল সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জেলা হচ্ছে নারায়ণগঞ্জ। বৈশাখের বর্ষবরণের সাথে ধর্মের কোন সম্পৃক্ততা নেই। তাই হেফাজতে ইসলামের হুংকার বা জঙ্গিবাদ নিয়ে মনের মধ্যে যতই শংকা থাকুক না কেন তা পরোয়া না করে দু’দিন ব্যাপী বর্ষবরণ উদযাপন করে দেখিয়ে দিল নারায়ণগঞ্জবাসী। শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) সরকারী ভাবে সকলে বর্ষবরণ উদযাপন করলেও পঞ্জিকা মতে সনাতন ধর্মালম্বীরা শনিবার (১৫ এপ্রিল) ব্যাপক আনন্দ উল্লাসের মাধ্যমে নববর্ষ উদযাপন করে। নারায়ণগঞ্জের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলোতে অনুষ্ঠিত হয় শুভ হালখাতা।
প্রসঙ্গত, বেশ কয়েকদিন পূর্ব থেকেই বর্ষবরণ উদযাপন না করতে নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রতি আহবান জানান হেফাজতে ইসলাম নারায়ণগঞ্জ জেলা আমীর মাওলানা আব্দুল আউয়াল। এমনকি পহেলা বৈশাখের দিনও তিনি নববর্ষ উদযাপন না করতে মুসলমানদের প্রতি আহবান জানান।
মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেন, পহেলা বৈশাখ কখনোই মুসলমানদের সংস্কৃতি হতে পারেনা। এটি বিজাতীদের সংস্কৃতি। এদিন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলোতে হালখাতা খোলা হয় যা সমুচীন না। এরফলে আমরা পথভ্রষ্ট হচ্ছি। এগুলো ইসলাম সমর্থন করেনা।
তাই মুসলমানসহ সকল ধর্মের লোকজনই উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বাঙালির প্রাণের উৎসব বর্ষবরণ উদযাপনসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হালখাতা উৎসব করে হেফাজতের মুখে ঝাঁমা ঘষে দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেন সচেতন নাগরিকরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here