নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর ৫ খুন মামলার একমাত্র আসামী ভাগ্নে মাহফুজকে মৃত্যুদন্ড প্রদান করেছে আদালত। একই সাথে তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
সোমবার (৭ আগষ্ট) সকাল সাড়ে ১১ টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালত হোসনে আরা এই দন্ডাদেশ প্রদান করেন।
রায় ঘোষণার সময় ভাগ্নে মাহফুজ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি এড. ওয়াজেদ আলী খোকন জানান, ‘ভাগ্নে মাহফুজ একাই ৫ জনকে খুন করায় আদালত তাকে ৫ বার মৃত্যুদন্ড প্রদান করেছেন। তবে ফাঁসির রশিতে একবার ঝুলালেই সেই আদেশ কার্যকর হবে বলে জানান তিনি।’

তিনি আরো জানান, ‘আসামী মাহফুজ ৫ জনকে একাই যে খুন করেছিল তা যুক্তিতর্ক উপস্থাপনকালে আদালতে তুলে ধরা হয়েছিল। হত্যাকান্ডের আলামত হিসেবে শিলপোঁতা, বিচারিক আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেটসহ ২৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ, ১৬৪ ধারায় ৫ জনকে খুন করার জবানবন্দির রেকর্ডসহ সমস্ত কিছু আদালতে উপস্থাপন করা হয়।’

এরআগে গত ৩০ জুলাই আদালতে মামলার একমাত্র আসামী মাহফুজের উপস্থিতিতে তার সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড প্রদানের দাবীতে সকল যুক্তি উপস্থাপন করেন রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলী এড. ওয়াজেদ আলী খোকন। আর তার বিরোধীতা করে আসামীর পক্ষে সাফাই যুক্তি উপস্থাপন করেন রাষ্ট্র নিয়োগকৃত আইনজীবী সুলতানুজ্জামান।

উল্লেখ্য, মামীর সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্কের জের ধরে গত বছরের ১৫ জানুয়ারী দিবাগত রাত থেকে ভোর পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ শহরের বাবুরাইল খানকা মোড় এলাকায় ‘আশেক আলী ভিলা’ নামের একটি বাড়ির একটি ফ্ল্যাটে ভাগ্নে মাহফুজ একাই শিলপোঁতা দিয়ে আঘাত ও শ্বাসরোধ করে একই পরিবারের পাঁচজনকে নৃংশসভাবে গলা কেটে হত্যা করে। ১৬ জানুয়ারী আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বাড়ির ফ্ল্যাটের তালা ভেঙে তাদের লাশ উদ্ধার করে। নিহতরা হলেন, তাসলিমা আক্তার (৪০) তার ছেলে শান্ত (১০), মেয়ে সুমাইয়া (৫), ভাই মোরশেদুল (২৫) এবং তার জা লামিয়া (২৫)।

এরপর নিহত তাসলিমার স্বামী বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here