নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ ও ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ কথিত এই দুটি ইস্যুকে কেন্দ্র করে আগামী ৫ জানুয়ারী নারায়ণগঞ্জে রাজপথে নামছে দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র স্থানীয় নেতাকর্মীরা। দিনটিকে ঘিরে ইতিমধ্যেই ব্যপক প্রস্তুতি নিচ্ছে দল দুটির শীর্ষ নেতারা। দলীয় একাধিক বিশ্বস্ত সূত্রে এমন তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।
এদিকে ৫ জানুয়ারী গণতন্ত্র হত্যা ও গণতন্ত্র বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আ’লীগ-বিএনপি’র পাল্টাপাল্টি কর্মসূচীতে নগরী জুড়েই সাধারণ মানুষের মাঝে বিরাজ করছে টানটান উত্তেজনা। তবে যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে রাজপথে সক্রিয় থাকবে পুলিশ, প্রশাসনিক সূত্রে বিষয়টি জানাগেছে।

জানাযায়, ২০১৩ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জনের পর থেকে দিনটিকে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করে আসছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। ওই নির্বাচনে ক্ষমতাসীণ দল আওয়ামী লীগ নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন না দেয়ায় উক্ত নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি। এরপর শুরু হয় দলটির ভাঙা গড়ার খেলা। দলের ক্রান্তিলগ্নে অনেক নেতাকর্মীই বিএনপি ছেড়ে যোগ দেয় আওয়ামী লীগে। এছাড়াও এলাকায় নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখতে শীর্ষ নেতাদের মধ্যে পূণরায় মাথা চড়া দিয়ে উঠে পুরনো কোন্দল। যার ফলে বিগত দিনগুলোতে সরকার পতন আন্দোলন থেকে শুরু করে কোন আন্দোলনেই রাজপথে সফল হতে পারেনি দলটি। অন্যদিকে বিএনপি’র পাশাপাশি আওয়ামী লীগ দিনটিকে পালন করে আসছে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ হিসেবে।

এবিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই জানান, ‘৫ জানুয়ারীতে আমাদের তেমন কোন আয়োজন নেই। ওইদিন তাঁতী লীগের একটি আলোচনা সভা রয়েছে। আমরা নেতাকর্মীরা সেখানেই অবস্থান করবো।’

তবে ১০ জানুয়ারী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তণ দিবস উপলক্ষ্যে জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বড় পরিসরে অনুষ্ঠান করা হবে বলে চানান তিনি।

এদিন জেলা আওয়ামী লীগের কোন আয়োজন না থাকলেও গণতন্ত্রের বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ২নং রেলগেটস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে গণজমায়েত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা।

এবিষয়ে মুঠোফোনে তারা জানান, ওই দিন (৫ জানুয়ারী) বিকেল সাড়ে ৩ টায় মধ্যে আমরা সকল নেতাকর্মীকে দলীয় কার্যালয়ের সামনে জমায়েত হতে বলেছি। এরপর আমরা শহরে আনন্দ মিছিল বের করবো।

এদিকে আওয়ামী লীগ যেই সময় রাজপথে আনন্দ র‌্যালী নিয়ে গণতন্ত্র দিবস উদ্যাপন করবে, ঠিক তার বিপরীত অবস্থানে গণতন্ত্র হত্যা দিবস উপলক্ষ্যে রাজপথে কালো পতাকা হাতে মিছিল বের করবে জেলা ও মহানগর বিএনপি। এ বিষয়ে জেলার পক্ষ থেকে আগেই বিবৃতি দেয়া হয়েছে।

মহানগর বিএনপি’র সেক্রেটারি এটিএম কামাল জানান, ‘সকাল ১০টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে নেতাকর্মীদের জমায়েত হতে বলা হয়েছে। এরপর পরই আমরা শহরে কালো পতাকা হাতে মিছিল বের করবো।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here